অ্যাঙ্গেলা মেরকেলের বিমানে গাড়ির ধাক্কা

জার্মানির বিমানবন্দরের এক কর্মী গাড়ি চালানোর সময় দাঁড়িয়ে থাকা একটি বিমানে দুর্ঘটনাবশত আঘাত করে। ওই বিমানটিতে করে চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেলের ডর্টমুন্ড থেকে বার্লিন ফেরার কথা ছিল। এ দুর্ঘটনার জন্য তার বার্লিনে ফিরে আসতে বিলম্ব হয়।

ডর্টমুন্ড বিমানবন্দরে এক নারী কর্মী সে গাড়িটি চালাচ্ছিলেন। এটি রানওয়েতে চলার জন্য বিমানবন্দরের একটি অভ্যন্তরীণ গাড়ি। ওই নারী কর্মী যখন গাড়িটি চালিয়ে যাচ্ছিলেন, তখন এঙ্গেলা মেরকেলের বিমানটি দেখে একটি ছবি তোলার জন্য দাঁড়ান।

কিন্তু ছবি তোলার সময় বিমানবন্দরের সে কর্মী গাড়িটির ব্রেক করেননি। ফলে সেটি গিয়ে আছড়ে পড়ে চ্যান্সেলরের বিমানের সামনে।

ওই দুর্ঘটনার পর মেরকেল একটি হেলিকপ্টারে করে বার্লিনে ফেরত আসেন। বিমানটি কতটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সেটি নিরূপণের কাজ এখন চলছে।

সে নারী গাড়ি চালক যখন বিমানের উপর ‘ফেডারেল রিপাবলিক অব জার্মানি’ লেখা দেখেন, তখন তিনি বেশ উৎসাহী হয়ে উঠেন এবং ছবি তোলার জন্য গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসেন। তখনই সেই গাড়িটি বিমানের সম্মুখভাগে আঘাত করে। এ ঘটনার সময় মেরকেল বিমানের ভেতরে ছিলেন না। ডর্টমুন্ডের কাছে একটি বিশ্ববিদ্যালয় পরিদর্শন শেষে তিনি বিমানবন্দরে ফিরছিলেন।

বেশ কয়েকটি ঘটনার পর জার্মান কর্তৃপক্ষ এখন বিমান সংকটে ভুগছে।

বিমান সংক্রান্ত ঝামেলার কারণে গত নভেম্বরে আর্জেন্টিনায় জি-টুয়েন্টি সামিটের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেননি মেরকেল। কারণ, বার্লিন থেকে উড্ডয়নের পর বিমানটি জরুরি অবতরণ করতে বাধ্য হয়।

ওই বিমানটির যোগাযোগ ব্যবস্থায় সমস্যা হচ্ছিল। পরবর্তীতে একটি বিমান ভাড়া করে জি টুয়েন্টি সামিটে যোগ দেন জার্মান চ্যান্সেলর।

সূত্র: বিবিসি বাংলা