‘আত্মঘাতী হতে না চাইলে বিএনপি নির্বাচনে আসবে’

আত্মঘাতী হতে না চাইলে নির্বাচনে আসাটাই বিএনপির জন্য সবচেয়ে উপযোগী সিদ্ধান্ত হবে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

বুধবার পার্টির ১৫ সদস্যের প্রতিনিধি দলসহ নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সাথে সংলাপে অংশ নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি।

মেনন বলেন, সংবিধান অনুযায়ী সংসদ বহাল রেখে বর্তমান সরকারের অধীনেই একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

কমিশনের সাথে সংলাপে পার্টির পক্ষে ১৪ দফা প্রস্তাবনা দেয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্তমান সরকারের অধীনেই অনুষ্ঠিত হবে। তবে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর সরকার দৈনন্দিন কার্যাবলী ছাড়া নীতিগত কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করবে না। নির্বাচনের সময় স্বরাষ্ট্র, স্থানীয় সরকার, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় নির্বাচন কমিশনের অধীনস্ত থাকবে। ’

মেনন আরও বলেন, ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিয়ে নির্বাচনে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েনের কোনো প্রয়োজন নেই। তবে একান্ত প্রয়োজনে ইসি আইনশৃংখলা রক্ষার স্বার্থে কোনো কোনো ক্ষেত্রে আইনশৃংখলা বাহিনীর সহায়তাকারী বাহিনী হিসেবে অর্থাৎ স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে প্রতিরক্ষা বাহিনীকে নিয়োগ করতে পারবেন।

আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংলাপে নির্বাচন কমিশনারবৃন্দ, ইসি সচিবালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব ও সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে অংশীজনদের সঙ্গে সংলাপ শুরু করে নির্বাচন কমিশন। ৩১ জুলাই সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, ১৬ ও ১৭ আগস্ট গণমাধ্যম প্রতিনিধির সঙ্গে মত বিনিময় করেছে ইসি। ২৪ আগস্ট থেকে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে মত বিনিময় শুরু হয়েছে।

আজ বুধবার ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি ন্যাপের সাথেও সংলাপে বসে কমিশন। কমিশন এ পর্যন্ত ৩০টি দলের সঙ্গে সংলাপে বসেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি ও বিকেল ৩টায় গণতন্ত্রী পার্টির সাথে কমিশন সংলাপে বসবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares