আর্জেন্টিনার হারের নেপথ্যে দুই সুন্দরী!

রাশিয়া বিশ্বকাপে শেষ আটে ওঠার আগেই ছিটকে যেতে হয়েছে আর্জেন্টিনাকে। এবারের বিশ্বকাপে মেসিদের সব স্বপ্ন শেষ। আর এ দুর্ঘটনার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন দুই সুন্দরী তরুণী। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে এমনটিই দাবি করা হয়েছে।

আর্জেন্টিনা ম্যাচে কিলিয়ান এমবাপ্পে দেখিয়ে দিয়েছেন যে, তিনি এসেছেন রাজত্ব করতে। তার এই উত্থানের পেছনে অনুপ্রেরণা জুগিয়েছেন তার বান্ধবী এলিসিয়া। এলিসিয়া আবার সাবেক ‘মিস ফ্রান্স’!

বয়স মাত্র ১৯ বছর হলেও এর মধ্যেই তিনি নাম লিখিয়েছেন কিংবদন্তিদের তালিকায়। তারকা থেকে মহাতারকা হয়ে ওঠার পথে এমবাপ্পেকে সারাক্ষণ ভরসা জুগিয়ে চলেছেন এলিসিয়া।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, চলতি বছরের মে মাস থেকেই এমবাপ্পে আর সিঙ্গেল নন। গত মে মাস থেকেই তিনি এলিসিয়ার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন। তবে ফ্রান্সের এ তারকাকে সমর্থন করে চলা এলিসিয়া জন্মসূত্রে ফরাসি নন। তিনি মূলত ফ্রান্স অধিকৃত ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের কৃষ্ণ-বর্ণা সুন্দরীর।

মা মারি চ্যান্টালের সঙ্গে এলিসিয়া ফ্রেঞ্চ গায়ানার মাতৌরিতে পাড়ি জমান। ২০১৬ সালে ‘মিস ফ্রেঞ্চ গায়ানা’ হন তিনি। পরের বছরই ‘মিস ফ্রান্স’-এর শিরোপা জিতে নেন।

অন্যদিকে, কাজান এরিয়ায় এলিসিয়ার পাশে দেখা গিয়েছিল অন্য এক সাবেক ‘মিস ফ্রান্স’ (২০০৭) রাচেল লেগ্রেন ত্রাপানি। ত্রাপানির বয়ফ্রেন্ড স্বয়ং বেঞ্জামিন পাভার্ড।

রাশিয়া বিশ্বকাপে শেষ আটে ওঠার আগেই পাভার্ডের সোয়ার্ভিং শটই ছিল আর্জেন্টিনা বধের টার্নিং পয়েন্ট। দুই সুন্দরীই গ্যালারিতে বসে আর্জেন্টিনার হারের পরোক্ষ কারণ হয়ে থাকলেন। গণমাধ্যমেগুলোতে এমনটাই দাবি করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *