‘আসাম তাড়ালে আমরা আশ্রয় দেব’-মমতা

ভারতের আসাম রাজ্য সম্প্রতি নাগরিকদের প্রকৃত তালিকা তৈরি করছে। এতে বাদ পড়েছে বিপুল সংখ্যক বাঙালি ও বাংলাভাষী। এ নিয়ে আসামের বাংলাভাষীদের উদ্বেগের শেষ নেই। তবে তাদের এ উদ্বেগ দূর করতে হাত বাড়ালেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যেঅপাধ্যায়।

মমতা বললেন, বাঙালিদের আসাম যদি তাড়িয়ে দেয় তাহলে তাদের পশ্চিমবঙ্গ আশ্রয় দেবে। মঙ্গলবার কামাখ্যাগুড়িতে এক সভায় তিনি বলেন, আসাম থেকে যদি কোনো বাঙালি বিতাড়িত হয়ে এই রাজ্যে আসে, তা হলে আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি জেলায় তাদের আশ্রয় দেবে।

 

মুখ্যমন্ত্রী মমতা আসামের সাম্প্রতিক নাগরিক তালিকায় দীর্ঘদিন বসবাসকারী অনেকের নাম না থাকার কথা বলে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন।

মমতা বলেন, ‘আসামে ৩ কোটি ৩৯ লাখের নাগরিক তালিকা তৈরির কথা। অথচ ১ কোটি ৩৯ লাখের নাম নেই। আগেই বলেছি এটি মানব না। কারণ এক রাজ্যের মানুষ আরেক জায়গায় থাকবেন, এটি আমাদের স্বাধীনতা। তাই এবার বলছি- আসাম থেকে কেউ এলে আশ্রয় দেব।’

 

এর পর আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ির বাসিন্দাদের উদ্দেশে বলেন, ‘আসাম থেকে কেউ অত্যাচারিত হয়ে এলে আশ্রয় দেবেন। ভালো বাসবেন। এটিই বাংলার সংস্কৃতি।’

আসামে প্রচুর অবৈধ বাংলাদেশিরা বাস করছেন, এমন অভিযোগ করে আসছে শাসক দল বিজেপি। আর তাদের চাপের মুখেই প্রকৃত নাগরিকদের তালিকা করা হচ্ছে। এ তালিকা নিয়ে সংঘাতের আশঙ্কায় ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে সরকার।

৩১ ডিসেম্বর মধ্যরাতে এক সংবাদ সম্মেলনে এ খসড়া তালিকা প্রকাশ করেন ভারতের রেজিস্ট্রার জেনারেল শৈলেশ। তবে যাদের নাম বাদ পড়েছে, তারা যদি প্রকৃত ভারতীয় নাগরিক হন তাহলে তাদের পরে অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে জানান তিনি।

আসামের নাগরিকদের তালিকা যাচাই কার্যক্রম পুরো ২০১৮ সালজুড়েই চলবে। এ ছাড়া সব খসড়া প্রকাশিত হওয়ার পরও আবেদন নেয়া হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তার ভিত্তিতেই তৈরি হবে চূড়ান্ত নাগরিকপঞ্জী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *