ইরানি হুমকি সত্ত্বেও তেল চলাচলের রাস্তা খোলা রাখব: আমেরিকা

মার্কিন সামরিক বাহিনী অঙ্গীকার করে বলেছে, ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের হুমকি সত্ত্বেও পারস্য উপসাগরে তারা তেল রপ্তানির পথ খোলা রাখবে। ইরানের তেল বিক্রি বন্ধ করা হলে তেহরান হরমুজ প্রণালী দিয়ে কোনো তেল পার হতে দেবে না বলে হুমকি দেয়ার পর মার্কিন সামরিক বাহিনী এ অঙ্গীকার ব্যক্ত করল।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে ইরানকে তেল বিক্রি করতে দেয়া হবে না এবং এভাবে দেশটির তেল উত্তোলণ শূণ্যের কোঠায় আনা হবে। ট্রাম্পের এ বক্তব্যের পর ইরানের প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি গত মঙ্গলবার সুইজারল্যান্ডের রাজধানী বার্নে দেশটির প্রেসিডেন্ট অ্যালাইন বেরসেতের সঙ্গে এক সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা দিয়েছেন- ইরান যদি হরমুজ প্রণালী দিয়ে তেল বিক্রি করতে না পারলে পারস্য উপসাগর দিয়ে কাউকে তেল বিক্রি করতে দেয়া হবে না।

প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি (বামে) ও মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ আলী জাফারি 

এ প্রসঙ্গে মার্কিন সামরিক বাহিনী বলেছে, “যেখানে আন্তর্জাতিক প্রযোজ্য সেখানে আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে জাহাজ চলাচলের স্বাধীনতা নিশ্চিত করব।” মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ডের মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল আরবান শুক্রবার এক বিবৃতিতে এসব কথা বলেছেন। তার এ বক্তব্য প্রকাশিত হয়েছে মিলিটারি ডট কম-এ।

ইরানি প্রেসিডেন্টের ওই বক্তব্যের পর ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র প্রধান মেজর জেনারেল মোহাম্মাদ আলী জাফারি বলেছেন, প্রেসিডেন্টের নির্দেশনা বাস্তবায়নে তারা সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছেন। হরমুজ প্রণালী দিয়ে সমুদ্রপথে মোট তেলের শতকরা ৩০ ভাগ তেল রপ্তানি হয়।

Leave a Reply