এই কথাটা বলতে এত ভয় কেনো?

ছেলেটা খুব সুন্দর করে গুছিয়ে ভালবাসার কথাগুলো লিখে.
তারপর SEND বাটন না চেপে BACKSPACE দিয়ে লেখাগুলো মুছে দেয়…

তারপর,
কেমন আছ??
লিখে মেয়েটিকে SEND করে…

মেয়েটি ছেলেটির ম্যাসেজ এসেছে দেখে খুব উৎসাহ নিয়ে ম্যাসেজটা OPEN করে.
মনে মনে সে ভাবে,
এতদিন ধরে যে লেখাটি দেখার জন্য সে ছটফট করতেছে আজ হয়ত ছেলেটি সেই লিখাটি লিখে পাঠাবে…

কিন্তু ছেলেটির “কেমন আছ” ম্যাসেজটা দেখে মেয়েটার প্রতীক্ষার প্রহর বাড়তে থাকে…

ছেলেটি আসলে যা লিখতে চায়
আর মেয়েটি যা পড় তে চায়,
সেই কথাটা অসংখ্যবার BACKSPACE এর চাপে মুছে যায়…

ছেলেটি জানে না এই মুহূর্তে তার BACKSPACE এর চাপে মুছে যাওয়া লেখাটি পড়ার জন্য ঐ প্রান্তে দুইটি চোখ চাতক পাখির মত চেয়ে আছে…

আর মেয়েটিও জানে না,
“কেমন আছ” লিখাটি লিখার আগে ছেলেটি অসংখ্যবার BACKSPACE চেপেছে
আর তাই তার রিপ্লাই দিতে এত দেরি হচ্ছে…

দুইজনের দুইটা মন একই সরলরেখায় পাশাপাশি দুইটা পথে চলছে…

একটু সাহস,
শুধুমাত্র একটু সাহসের দরকার দুইটা সরলরেখাকে এক করে দিতে…

তুমি যাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখতেছ,
হয়ত সেও গলা পর্যন্ত কথা নিয়ে বসে আছে তোমাকে শুনাবে বলে…

একজন একটু সাহস করে লিখেই ফেল না “ভালবাসি” কথা টা…

“এই কথাটা বলতে এত দেরি করলা কেন বোকা??”-এমন একটা রিপ্লাই অপর প্রান্ত থেকে আসতেও তো পারে…

Leave a Reply