একের পর এক কন্যাসন্তান জন্ম দেওয়া গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যা!

একের পর এক কন্যাসন্তান জন্ম দেওয়ার অভিযোগে ভারতের এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে। পশ্চিমবঙ্গে ২৪ পরগনা জেলার রাজারহাটে এ ঘটনা ঘটেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জিনিউজের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৫ বছর আগে রাজারহাটের পানাপুকুর এলাকার আসগর আলির সঙ্গে বিয়ে হয় ফাতেমা বেগমের। এই দম্পতির দুই মেয়ে রয়েছে। আরও দুটি কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন ফতেমা, তবে তাদের মৃত্যু হয়।

অভিযোগ, একের পর এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ায় অত্যাচার চলতো ফাতেমার উপর। সেই সঙ্গে বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দেওয়ার জন্য নিয়মিত চাপ দেওয়া হত তাকে। আর টাকা না দিতে পারলে তার উপর চলতো বেধড়ক মারধর। গত মঙ্গলবারও ৫০ হাজার টাকা নিয়ে আসার জন্য ফতেমাকে জোর করে তার বাবার বাড়ি পাঠানো হয়। কিন্তু টাকা আনতে না পারায় তাকে নৃশংসভাবে পেটানো হয় বলে অভিযোগ।

গতকাল শুক্রবার ফাতেমার বাবার বাড়ির লোকজন জানতে পারেন, ফাতেমা গুরুতর অসুস্থ। তাকে দেখতে রাজারহাটের বাড়িতে যান তারা। কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখেন, ঘরের মধ্যে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় পড়ে ফাতেমা। আর ওই সময়ে তার হাত-পা বাঁধা ছিল।

এ ঘটনায় ফাতেমার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে রাজারহাট থানায় হত্যার অভিযোগ দায়ের করেছে ফাতেমার পরিবার। আর ঘটনার পর থেকেই তার স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক রয়েছে।

Leave a Reply