এমসিকিউ বাদ দিয়ে প্রাথমিকের নতুন প্রশ্ন কাঠামো

এমসিকিউ বাদ দিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা- ২০১৮ এর নতুন প্রশ্ন কাঠামো ও নম্বর বিভাজন চূড়ান্ত করা হয়েছে।

গতকাল প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মাল্টিপারপাস কনফারেন্স হলে শতাধিক শিক্ষক, শিক্ষাবিদ, বিশেষজ্ঞ এনসিটিবির প্রতিনিধি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইইআর প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে এ প্রশ্নকাঠামো চূড়ান্ত হয়।

এবারের প্রশ্ন কাঠামো এবং নম্বর বিভাজনে বেশ কিছুু পরিবর্তন আনা হয়েছে। তবে মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনক্রমে এটি প্রকাশ করতে আরো সপ্তাহখানেক সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমির (নেপ) মহাপরিচালক মো. শাহ আলম।

তিনি জানান, কর্মশালায় প্রশ্নকাঠামো এবং নম্বর বিভাজন চূড়ান্ত হয়েছে। সবার মতামতের ভিত্তিতেই যুগপোযোগী একটি নতুন প্রশ্ন কাঠামো তৈরি করা হয়েছে। যাতে শিক্ষার্থীদের কোনো ধরনের অসুবিধার সম্মুখীন হতে না হয়। আশা করছি মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনক্রমে চলতি সপ্তাহের মধ্যেই প্রকাশ করতে পারবো।

নতুন প্রশ্ন কাঠামোতে কি ধরনের পরিবর্তন আনা হয়েছে? এ বিষয়ে কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেছেন এমন একজন জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জানান, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়, বিজ্ঞান, ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা এই তিনটি বিষয়ে পূর্বের প্রশ্ন কাঠামোর মতোই এবারও ১৫টি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন রাখা হয়েছে। তবে প্রতিটি প্রশ্নের মান ১ থেকে বাড়িয়ে ২ করা হয়েছে। অর্থাৎ সংক্ষিপ্ত প্রশ্নে মোট ৩০ নম্বর থাকছে এবারের প্রশ্ন কাঠামোতে।

তিনি আরও জানান, উল্লেখিত বিষয়গুলোর প্রশ্নকাঠামোতে এবার নতুন করে যুক্ত হয়েছে মিলকরণ, শূন্যস্থান পূরণ। যা পূর্বের প্রশ্নকাঠামোতে ছিলো না। মিলকরণে ১০ (মিলকরণ বাম পাশে ৫ ডান পাশে ৭টি বাক্য দেয়া থাকবে- ৫x২= ১০) এবং শূন্যস্থান পূরণে (১৪টি দেয়া থাকবে ১২টির উত্তর লিখতে হবে) রাখা হয়েছে ১২ নম্বর। এছাড়া ৮টি কাঠামোবদ্ধ প্রশ্নের উত্তর করতে হবে যার প্রতিটি প্রশ্নের মান রাখা হয়েছে ৬। এখানে মোট নম্বর থাকছে ৪৮।

গণিতে সংক্ষিপ্ত প্রশ্নের সাথে এবার সংযোজন করা হয়েছে এক কথায় প্রকাশ। ইংরেজিতে সিন ও আনসিন অংশে বহুনির্বাচনী প্রশ্নের পরিবর্তে True False নতুনভাবে সংযোজন করা হয়েছে। বাংলায় বহুনির্বাচনী প্রশ্নের পরিবর্তে শব্দের (অনুচ্ছেদ থেকে) অর্থ লিখন, পৃথক অনুচ্ছেদ হতে প্রশ্ন তৈরি করণে (কী, কেন, কোথায়, কেমন, কখন ব্যবহার করে) নম্বর রাখা হয়েছে ৫।

উল্লেখ্য, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি (নেপ) থেকে চলতি বছরের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় শতভাগ যোগ্যতাভিত্তিক প্রশ্নপত্রের কাঠামো জারি করা হয়। এতে প্রাথমিকের ৬টি বিষয়ের মধ্যে বাংলায় ১০ নম্বর, ইংরেজিতে ২০ নম্বর, গণিতে ২৪ নম্বর, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয়ে ৫০, প্রাথমিক বিজ্ঞানে ৫০ ও ধর্ম বিষয়ে ৫০ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্নপত্র রাখা হয়। কিন্তু নতুন প্রশ্নকাঠামোতে এমসিকিউ বাদ দিয়ে ওসব জায়গায় মিল করণ, শূন্যস্থান পূরণ, True False, এক কথায় প্রকাশ রাখা হলো।

নেপ`র মহাপরিচালক মো. শাহ আলম এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ আসিফ-উজ-জামান, বিশেষ অতিথি ছিলেন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. এ এফ এম মনজুর কাদির, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবু হেনা মোস্তফা কামাল প্রমূখ।

প্রশ্নপত্র ফাঁসরোধে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার (পিইসি) প্রশ্নপত্র থেকে এমসিকিউ বা বহুনির্বাচনী অংশ বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ মর্মে গত ২ এপ্রিল একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি (নেপ)। আগামী নভেম্বরের মাঝামাঝিতে চলতি বছরের প্রাথমিক ও ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

সূত্র: শিক্ষাবার্তা

Leave a Reply