এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশের নতুন ইতিহাস

এশিয়ান গেমস ফুটবলে এর আগে কয়েকবার জয় পেলেও কখনো নকআউট পর্বে উঠা হয়নি বাংলাদেশ দলের।

জাভার প্যাট্রিওট চন্দ্রভাকা স্টেডিয়ামে আজ সন্ধ্যায় কাতারকে ১-০ গোলে হারিয়ে এশিয়ান গেমস নকআউট পর্বে উঠে নতুন ইতিহাস তৈরি করেছে বাংলাদেশ।

পুরো ম্যাচে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর দ্বিতীয়ার্ধে যোগ করা সময়ে জয়সূচক কাঙ্খিত গোলের দেখা পায় বাংলাদেশ। এ সময় জামাল ভূইয়ার গোলে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। মাসুক মিয়া জনির পাস থেকে বল নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে গড়ানো শটে কাতারের জালে পাঠান দলীয় অধিনায়ক। শেষপর্যন্ত এ ব্যবধানেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে সক্ষম হয় লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

গ্রুপ ‘বি’ থেকে ৩ ম্যাচে একটি করে জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে রানার্সআপ হয়ে নকআউট পর্বে উঠল বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচে উজবেকিস্তানের বিপক্ষে ৩-০ গোলে হারে বাংলাদেশ। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচটি থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র হয়।

বিশ্বকাপ ২০২২ এর আয়োজক কাতার। র‌্যাঙ্কিংয়ের কাতারের সঙ্গে বাংলাদেশ দলের রয়েছে যোজন-যোজন দূরত্ব। পরবর্তী বিশ্বকাপের আয়োজদের অবস্থান যেখানে ৯৮ সেখানে বাংলাদেশের ১৯৪। সেই কাতারকে আজ হারিয়ে এশিয়ান গেমসে নতুন ইতিহাসের জন্ম দিয়েছে বাংলাদেশ। এর মধ্য দিয়ে এই টুর্নামেন্ট এই প্রথম শেষ ষোলোতে খেলবে বাংলাদেশ দল।

এশিয়ান গেমসের এর আগে ১৯৮২ সালে মালয়েশিয়া, ১৯৮৬ সালে নেপাল এবং ২০১৪ সালে আফগানিস্তানকে হারিয়েছে বাংলাদেশ। কিন্তু আজ জাকার্তায় এ জয়ের মধ্যে দিয়ে নয়া ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ।আর প্রথমবারের মতো এই রেকর্ডের মধ্য বাংলাদেশের ঝিমিয়ে পড়া ফুটবল অঙ্গনে গতি আসতে পারে। কেননা আজ কাতারকে হারানোর মধ্য দিয়ে এশিয়ায় সেরা ১৬ দলের একটি হলো লাল-সবুজের জার্সিধারীরা।

কোয়ার্টার ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে আগামী ২৪ আগস্ট মাঠে নামবে বাংলাদেশ। সেখানে ‘এফ’ গ্রুপের রানার্সআপ দলের বিপক্ষে খেলবে তারা। যেখানে সৌদি আরব, ইরান, মিয়ানমার ও উত্তর কোরিয়ার মতো শক্তিশালী দলগুলো রয়েছে। তবে প্রতিপক্ষ হিসেবে গ্রুপ পর্বে দুই ম্যাচ শেষে শীর্ষে থাকা সৌদি কিংবা ইরানের সম্ভাবনাই বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *