কথিত বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় উদ্বেগ মানবাধিকার কমিশন

দেশে চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে মাদক ব্যবসায়ীদের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ হতাহতের ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।

মঙ্গলবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা ফারহানা সাঈদের সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই উদ্বেগ জানানো হয়েছে।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের বরাত দিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, যেকোনো বিচার বহির্ভূত হত্যাকে সমর্থন করে না কমিশন। সেই সঙ্গে এসব ঘটনায় তারা উদ্বেগ প্রকাশ করছে।

কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেন, মাদক একটি মরণ নেশা এবং আমাদের জাতীয় শত্রু। সুন্দর ভবিষ্যৎ প্রজন্ম উপহার দিতে দেশকে মাদকমুক্ত করার বিকল্প নেই। তাই মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের মানবাধিকার ও দেশের প্রচলিত আইনের প্রতি লক্ষ্য রেখে এই অভিযান পরিচালনা করতে হবে। এই অভিযানে নিরপরাধ কেউ যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সেদিকে বিশেষভাবে লক্ষ্য রাখতে হবে।

মাদকের বিরুদ্ধে সরকারের পাশাপাশি সবাইকে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা গ্রহণ করতে হবে এবং সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে বলেও উল্লেখ করেছেন রিয়াজুল হক।

সোমবার সারাদেশের ৯ জেলায় র‌্যাব ও পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন দাবি করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

কুমিল্লায় ২, নীলফামারীতে ২, চট্টগ্রামে ১, নেত্রকোনায় ১, দিনাজপুরে ১, ফেনী ১, নারায়ণগঞ্জে ১, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ১ এবং চুয়াডাঙ্গায় ১ মাদক ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন।

অন্যদিকে এদিন মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, গত ২১ দিনে ২৭ ব্যক্তি তথাকথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

সূত্র: আরটিভি অনলাইন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *