কেপটাউনে বোলারদের দিন

‘যেমন উইকেট চেয়েছি, সেটাই তৈরি করা হয়েছে’—নিউল্যান্ডসের উইকেট নিয়ে ফাপ ডু প্লেসি যে ভীষণ খুশি, সেটি তিনি কালই জানিয়েছেন। কিন্তু টস জিতে কেপটাউন টেস্টে প্রথম ইনিংসে যে ব্যাটিং করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা, তাতে খুশি হওয়ার কথা নয় ডু প্লেসির। তবে প্রোটিয়ারাও স্বস্তিতে দিন শেষ করতে দেয়নি ভারতকে। কেপটাউন টেস্টের প্রথম দিনে দাপট দেখিয়েছেন দুই দলের বোলাররাই।

দক্ষিণ আফ্রিকাকে ২৮৬ রানে অলআউট করা ভারতের শুরুটা ভালো হয়নি। মুরালি বিজয়-শিখর ধাওয়ানের ওপেনিং জুটি ভেঙেছে ১৬ রানে। ১১ রানের মধ্যে ফিরে গেছেন বিজয় (১), ধাওয়ান (১৬) ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি (৫)। ৩ উইকেটে ২৮ রান তুলে দিন শেষ করেছে ভারত।

‘টস জিতলে বোলিং নিতাম’, নিউল্যান্ডসের উইকেটে নিজের পেসারদের ওপর যে অগাধ আস্থা, সেটি টসের সময়ই কোহলি জানিয়েছেন। অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দিয়েছেন বোলাররা; বিশেষ করে ভুবনেশ্বর কুমার। নিজের প্রথম ৩ ওভারে ৩ উইকেট নিয়ে শুরুতেই কোণঠাসা করে দিয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকাকে।

৫ ওভারের মধ্যে ১২ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে কাঁপতে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকাকে পথ দেখান ডি ভিলিয়ার্স ও অধিনায়ক ডু প্লেসি। পাল্টা আক্রমণকেই রক্ষণের অস্ত্র হিসেবে বেছে নেন ‘এবি’। শুরুটা করেন ভুবনেশ্বরেরই এক ওভারে চারটি চার মেরে। অতটা আক্রমণাত্মক না হলেও ডু প্লেসির ব্যাটও চড়াও হয়ে উঠেছিল ভুবনেশ্বর, মোহাম্মদ শামি, জসপ্রিত বুমরা, হার্দিক পান্ডিয়ার ওপর। দুজনে মিলে প্রায় চার গড়ে রান তুলে সামলে নেন শুরুর ধাক্কাটা।

ডি ভিলিয়ার্স-ডু প্লেসির চতুর্থ উইকেট জুটিতে দক্ষিণ আফ্রিকা যখন বড় স্কোরের স্বপ্ন দেখছে, তখন বুমরার আঘাত! অসাধারণ এক ডেলিভারিতে ৬৫ রান করা ডি ভিলিয়ার্সকে বোল্ড করে দেন অভিষিক্ত ভারতীয় পেসার। খানিক পরে ফিরে গেছেন ডি ভিলিয়ার্সের সঙ্গে ১১৪ রানের জুটি গড়া ডু প্লেসিও। ১০৪ বলে তাঁর ৬২ রানের ইনিংসটিতেও নাটক কম হয়নি। ৭ উইকেটে ২৩০ রান নিয়ে চা-বিরতিতে যাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকা থেমে গেছে ২৮৬ রানে।

ভারতীয় বোলাররা শুরুটা যত দুর্দান্ত করেছিলেন, ঠিক ততই বাজে হয়েছে তাদের ব্যাটিং। স্টেইন-মরকেল-ফিল্যান্ডার-রাবাদাদের নিয়ে গড়া দক্ষিণ আফ্রিকার শক্তিশালী ফাস্ট বোলিং আক্রমণ দ্রুত ৩ উইকেট নিয়ে বার্তা দিয়ে রেখেছে, দ্বিতীয় দিনে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের তারা আরও জ্বালাবে!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *