কোটা সংস্কারের দাবি অগ্রাহ্য করছে সরকার: ফখরুল

কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলাকে পাশবিক আচরণ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার এক বিবৃতিতে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, শাসকগোষ্ঠীর কার্যকলাপ এখন বীভৎসরূপে আত্মপ্রকাশ করেছে। এ জন্য সরকার নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের পক্ষ থেকে কোনো দাবির আওয়াজ উঠলে তা দমন করতে দ্বিধা করে না এবং তাদের ন্যায়সঙ্গত ও যৌক্তিক দাবিকে অগ্রাহ্য করতেও পিছপা হয় না।

তিনি বলেন, চাকরিতে কোটা সংস্কার নিয়ে এর আগে জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া প্রতিশ্রুতি রক্ষা দূরের কথা; বরং কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের ওপর ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন করে ক্ষমতাসীন দলের ছাত্র সংগঠনকে দিয়ে হামলার মাধ্যমে আহত করা ও পুলিশ দিয়ে গ্রেফতার করানো কখনই সুস্থ মানসিকতার পরিচয় বহন করে না।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের বিবেকবান কোনো মানুষই সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে এ ধরনের বিবেকবর্জিত নিষ্ঠুরতা প্রদর্শন কোনোভাবেই মেনে নিতে পারে না।

তিনি বলেন, কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনকারী ছাত্রছাত্রীরা সন্তানতুল্য। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কিংবা সরকারদলীয় সংগঠনকে ব্যবহার করে তাদের প্রতি অমানবিক-নির্দয় আচরণ অত্যন্ত লজ্জাজনক। আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের দাবি তোয়াক্কা না করে তাদের ওপর সরকারের এই অন্যায় পাশবিক আচরণের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

মির্জা ফখরুল অবিলম্বে চাকরিতে কোটা সংস্কার বিষয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ সমাধান এবং অবিলম্বে কোটা সংস্কার আন্দোলনে গ্রেফতারদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান।

Leave a Reply