চালের দাম ৪০ টাকার নিচে বাস্তবসম্মত নয়: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রতি কেজি মোটা চালের দাম ৪০ টাকার নিচে নামিয়ে আনা বাস্তবসম্মত হবে না বলে মনে করেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

তার মতে, মোটা চালের দাম ৪০ টাকার নিচে নামিয়ে আনা হলে তাতে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে চা প্রদর্শনী-২০১৮ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তার ব্যক্তিগত মতামত, ৪০ টাকার নিচে কখনও চালের দাম আর আসবে না। এটা বাস্তবসম্মতও হবে না। সুতরাং মোটা চালের দাম গড় পড়তায় ৪০ টাকাই থাকবে।

সরকারের হিসাব অনুযায়ী, মোটা চালের কেজিপ্রতি বিক্রয়মূল্য ৪৩ থেকে ৪৫ টাকা বলেও জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, কৃষকের দিকেও খেয়াল রাখতে হবে। চালের দাম যখন কম ছিল, তখন কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই কৃষককে গুরুত্ব দিতে হবে। কৃষকরা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হলে তারা ধান চাষে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। আর কৃষক যদি ধান চাষে আগ্রহ হারায় তাহলে সমস্যায় পড়তে হবে।

বাংলাদেশ খাদ্য উদ্বৃত্ত থেকে খাদ্য ঘাটতির দিকে চলে যাচ্ছে কি-না— এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘গত বছর প্রতিবেশী দেশ ভারতেও বন্যায় পেঁয়াজ ও ধানের ক্ষতি হয়েছে। আমরা এখনও খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশ হিসেবেই থাকব। কারণ বন্যার পরও এ বছর যে ফসল আসছে এবং আসবে, তাতে খাদ্য উদ্বৃত্ত দেশ হিসেবেই থাকব।’

আমদানি পরিস্থিতির তথ্য দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত সরকারি খাতে ১০ লাখ ১০ হাজার টন খাদ্য আমদানি হয়েছে। এর মধ্যে চাল ৬ লাখ ৪৯ হাজার টন ও গম ৩ লাখ ৬১ হাজার টন। আর বেসরকারি খাতে এসেছে ৫৬ লাখ ৬৪ হাজার টন খাদ্যশস্য। চাল ১৯ লাখ ৩২ হাজার টন ও গম ৩৭ লাখ ৩২ হাজার টন।

বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসুসহ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অন্য কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *