ঢাবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচন আজ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শিক্ষক সমিতির ২০১৮ সালের কার্যকরী পরিষদের নির্বাচন আজ সোমবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এতে আওয়ামীপন্থি শিক্ষকদের প্যানেল নীল দল এবং বিএনপি-জামায়াতপন্থি সাদা দল অংশগ্রহণ করছে। এদিকে, কার্যকরী পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও তা জমা দেয়নি বাম সমর্থিত গোলাপি দল।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাব ভবনে সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা প্রায় দুই হাজার। নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব পালন করবেন অধ্যাপক ড. তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী।

অধ্যাপক তোফায়েল আহমেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের তালিকা অনুযায়ী ভোটার তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। শুধু তালিকাভুক্তরাই ভোট দিতে পারবেন। যারা চাকরি থেকে বরখাস্ত হয়েছেন, তারা ভোট দিতে পারবেন না। তবে সাময়িক বরখাস্ত, এলপিআর, ইমেরিটাস অধ্যাপক, সুপারনিউমারি অধ্যাপকরাও ভোট দিতে পারবেন।

নীল দলের সভাপতি প্রার্থী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থ অ্যান্ড এনভাইরনমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন এবং দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল। এছাড়া তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের সূর্যসেন হলের প্রাধ্যক্ষের দায়িত্বে রয়েছেন। তিনি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির বর্তমান সভাপতি ও তার পূর্বের কমিটির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

নির্বাচনের বিষয়ে অধ্যাপক মাকসুদ কামাল বলেন, সমিতির পূর্বের কমিটির দেয়া অধিকাংশ ওয়াদা আমরা পূরণ করতে সমর্থ হয়েছি। আমরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে অ্যাকাডেমিক ও অবকাঠামোগতভাবে বিশ্বের বুকে দাঁড় করাতে চাই। আশা করি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা আমাদের এই কাজে সহযোগিতা করবেন।

বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত সাদা দলের সভাপতি প্রার্থী পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম জানান, বিগত কয়েক বছরে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগসহ বিভিন্ন ধরনের অনিয়ম হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের ক্ষমতার অসামঞ্জস্যতার কারণে শিক্ষকরা দ্বন্দ্বে জড়িয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক দুরবস্থার কথা বিবেচনা করে শিক্ষকরা আমাদের নির্বাচিত করবেন বলে আশা করছি।

নির্বাচনে নীল দলের প্রার্থী: সভাপতি পদে মাকসুদ কামাল, সহসভাপতি উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন মো. ইমদাদুল হক, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক তাজিন আজিজ চৌধুরী, কোষাধ্যক্ষ অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ।

সদস্য পদে গণিত বিভাগের অধ্যাপক চন্দ্রনাথ পোদ্দার, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের জিনাত হুদা, সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ড. মুহাম্মাদ সামাদ, লেদার অ্যান্ড টেকনোলজি অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক মো. আফতাব আলী শেখ, ক্রিমিনোলজি বিভাগের অধ্যাপক মো. জিয়াউর রহমান, খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক নিজামুল হক ভূঁইয়া, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সাদেকা হালিম, অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সাবিতা রিজওয়ানা রহমান, ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের সৈয়দ মোহাম্মদ শামছুদ্দিন ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক সৌমিত্র শেখর দে।

সাদা দলের প্রার্থী: সভাপতি পদে অধ্যাপক এ বি এম ওবায়দুল ইসলাম, সহসভাপতি ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. লুৎফর রহমান, যুগ্ম সম্পাদক ফার্মাসিউটিক্যাল কেমিস্ট্রি বিভাগের অধ্যাপক মো. আসলাম হোসেন, কোষাধ্যক্ষ মার্কেটিং বিভাগ অধ্যাপক এ বি এম শহিদুল ইসলাম।

সদস্য প্রাণরসায়ন ও অণুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ইয়ারুল কবীর, সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ এস এম আমানুল্লাহ, সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক গোলাম রব্বানী, পালি ও বুড্ডিস্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক দিলীপ কুমার বড়ুয়া, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের মোহাম্মাদ জসীম উদ্দিন, জিন প্রকৌশল ও জীবপ্রযুক্তি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মাদ নাজমুল আহসান, গ্রাফিক্স ডিজাইন বিভাগের মো. ইসরাফিল প্রামাণিক, ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান মো. নুরুল আমিন, ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক মো. মহিউদ্দিন, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন ও কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশলী বিভাগের অধ্যাপক মো. হাসানুজ্জামান।

সূত্র : মানব কণ্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *