ত্রিশালে মুক্তিযোদ্ধাকে গলা কেটে হত্যা

ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলায় আওয়ামী লীগ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধাকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার সকালে উপজেলার মঠবাড়ী ইউনিয়নের নিজ ফিশারি পুকুর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, নিহতের নাম আব্দুল মতিন (৬৮)। তিনি মঠবাড়ী ইউনিয়নের ৮ নম্বর খাগাটি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। তার বাড়ি খাগাটি গ্রামে।

মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন স্থানীয় খাগাটি জামতলী মাদরাসার সহকারী শিক্ষকও ছিলেন। পূর্বশত্রুতার জেরে এ হত্যাকাণ্ড হতে পারে বলে পুলিশ ধারণা করছে। এ ঘটনায় পুলিশ এখনও কাউকে আটক করতে পারেনি।  ত্রিশাল থানার ওসি জাকিউল ইসলাম জানান, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন প্রতিদিনই নিজ ফিশারিতে রাত্রিযাপন করতেন। কোনও কেয়ারটেকার ছিল না। সকালে স্থানীয়রা পুকুরের পানিতে আব্দুল মতিনের মরদেহ ভাসতে দেখে পরিবারের লোকজন ও পুলিশকে খবর দেয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে সকাল নয়টার দিকে গলা কাটা মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহত আব্দুল মতিনের ছেলে আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, প্রতিদিনের মতো তার বাবা নিজের ফিশারিতে রাত্রি যাপনের জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। ফজরের নামাজের সময় মসজিদে না আসায় মুসুল্লিরা তার ফিশারিতে খোঁজ নেন। কিন্তু সেখানে না পেয়ে বাড়ির লোকজনকে জানান। অনেক খোঁজাখুঁজির পর সকাল ছয়টার দিকে ফিশারির পানিতে গলা কাটা মরদেহ ভাসতে দেখতে পান তারা। ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) এরশাদ উদ্দিন জানান, জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আমরা গভীরভাবে শোকাহত এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে খুনিদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *