দুদক কর্মকর্তাকে ঘুষ দিতে গিয়ে গ্রেপ্তার ২

দুর্নীতির অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেতে দুর্নীত দমন কমিশনের (দুদক) কর্মকর্তাকে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা ঘুষ দিতে গিয়ে হাতেনাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারসহ দুইজন।

বুধবার রাতে দুদকের নোয়াখালী কার্যালয় থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য এ তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেপ্তারকৃত ব্যক্তিরা হলেন-নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এস এম আবদুল ওহাব ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ের অফিস সহকারী মো. আমিন উল্যা।

ওই ঘটনায় গ্রেপ্তার দুইজনকে আসামি করে নোয়াখালীর সুধারাম মডেল থানায় মামলা করেছেন দুদক নোয়াখালী সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. মশিউর রহমান।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, দুর্নীতির একটি অভিযোগের অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে বুধবার দুপুরে দুদকের তলবে আসামি এস এম আবদুল ওহাব দুদকের নোয়াখালী কার্যালয়ে হাজির হন। এই সময় তিনি জানান অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেতে অপর আসামি আমিন উল্যাকে টাকা দিয়েছেন। এ কথা শুনে দুদকের অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা মশিউর রহমান আবদুল ওহাবের মাধ্যমে মোবাইল ফোনে আমিন উল্যাকে ওই টাকাসহ আসতে বললে তিনি টাকাসহ দুদক কার্যালয়ে হাজির হন।

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর সেনবাগ উপজেলা অফিসের গেটের সামনে সেনবাগ উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা দপ্তর সম্পাদক মোমিনুল হকসহ কয়েকজনের উপস্থিতিতে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা আমিন উল্ল্যাকে দেওয়া হয়েছিল।

এরপর সকলের উপস্থিতিতে আমিন উল্যা প্যান্টের পকেট থেকে চারটি বান্ডেলে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা বের করলে হাতেনাতে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে ওই টাকা জব্দ করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares