ধর্ষণের শিকার শিশুটি এখন মা

ভারতের লখনৌতে ধর্ষণের শিকার ১২ বছর বয়সী এক শিশু ছেলেসন্তানের মা হয়েছে। তবে ওই নবজাতককে গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে ধর্ষণের শিকার শিশুটির পরিবার।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শনিবার সন্ধ্যায় উত্তর প্রদেশের রাজধানী লখনৌতে একটি সরকারি হাসপাতালে ১২ বছর বয়সী ওই শিশুর ছেলেসন্তানের জন্ম হয়।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক সারিতা সাক্সেনা বলেন, ১২ বছর বয়সী শিশুটির ছেলেসন্তান হয়েছে। অস্ত্রোপচার ছাড়াই স্বাভাবিকভাবে নবজাতকের জন্ম হয়েছে। শিশুটি ভালো আছে। তার ওজন ২ দশমিক ৩ কেজি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শিশুটির বাবা মারা গেছেন। শিশুটির এক বড় ভাই আছেন। তিনি কারখানায় শ্রমিকের কাজ করে পরিবারের জীবিকা নির্বাহ করেন।

সদ্য মা হওয়া ওই শিশুর পরিবার জানায়, তারা ইন্দিরা নগর এলাকায় একটি বাসায় ভাড়া থাকতেন। গত বছরের শুরুর দিকে এক প্রতিবেশী শিশুটিকে কৌশলে ধর্ষণ করেন। বিষয়টি কাউকে না জানানোর হুমকিও দিয়েছিলেন তিনি। এ কারণে বিষয়টি আগে জানা যায়নি। গত আগস্টে শিশুটির পেটে ব্যথা হয়। তাকে হাসপাতালে নেওয়ার পর পরীক্ষা-নিরীক্ষায় জানা যায় সে অন্তঃসত্ত্বা। এমন সময়ে বিষয়টি জানা গেছে যে তখন আর গর্ভপাত করানোর কোনো উপায় ছিল না। এরপরে ওই প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে থানায় শিশু ধর্ষণের অভিযোগ করে তারা।

নবজাতককে গ্রহণ করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশুটির মা বলেন, ‘আমরা গরিব মানুষ। সামাজিকতার কারণেই আমরা নিতে পারব না।’

ইন্দিরা নগর থানার কর্মকর্তা মুকুল ভার্মা বলেন, শিশুটির পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২৬ আগস্ট ওই অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares