ধর্ষণের হুমকিতেও গান ছাড়েননি তিনি!

বিশ্ববাসী আজ সোরৌরিকে চেনে আফগানিস্তানের প্রথম মহিলা র‌্যাপ শিল্পী হিসেবে। মেয়েদের অধিকার নিয়ে সেই প্যারাডাইস সোরৌরি’র গান সাড়া ফেলেছে বিশ্বে। যদিও আঘাত কম পাননি সোরৌরি। এক সময় তাকে তাজিকিস্তানে চলে যেতে হয়। আর সেখানেই খবর পান, তার নয় ও বারো বছরের দুই বোন আত্মহত্যা করেছে। তাদের বিয়ে ঠিক হয়েছিল ষাটোর্ধ দুই ব্যক্তির সঙ্গে, তারা তা চায়নি। এই খবরে বিধ্বস্ত সোরৌরি আফগানিস্তানে ফিরে রেকর্ড করেন গান ‘নালেস্তান’। ভিডিওতে তাকে গাইতে দেখা যায়, ‘আমি ভাবতে চেয়েছিলাম, ওরা আমায় মেরেছে।’ বাইশ বছর বয়সে ২০১২ সালে সেই গান রেকর্ডের পরেই নজরে আসেন তিনি। ‌এরপর দি গার্ডিয়ানসহ একাধিক আর্ন্তজাতিক সংবাদ মাধ্যমের শিরোনামে আসেন তিনি।

এক পর্যায়ে বাড়ে প্রাণহানির হুমকিও। হুমকির জেরে তিনি ও তার প্রেমিক বার্লিন চলে যান। তাদের ‘ওয়ানফর্টিথ্রি ব্যান্ড’ এর ফেসবুক পেজে খুন, ধর্ষণ, অ্যাসিড ছোড়াসহ এমন কোনো হুমকিই বাদ থাকেনি। তবু গান ছাড়েননি সোরৌরি। দেশের নারীদের কথা পৌঁছে দিয়েছেন বিশ্বে। সম্প্রতি লন্ডনে নারীর অধিকার নিয়ে একটি সম্মেলনে জানিয়েছেন, গানেই তুলে ধরবেন দেশের মেয়েদের কথা। এবার তাই সোরৌরির লড়াইয়ের পালে হাওয়া দিয়েছে অন্য মেয়েদের লড়াইও।

বিডি প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares