‘নারীরা জিন্সের প্যান্ট পরলে ধর্ষণ করা কর্তব্য’

নারীরা ছেঁড়া-ফাটা জিন্স পরে রাস্তায় বের হলে দেশবাসীর তাদের ধর্ষণ করা কর্তব্য বলে মন্তব্য করেছেন মিশরের এক আইনজীবী। নাবিহ আল-ওহাস নামের ওই আইনজীবী বলেন, নারীদের উগ্র সাজ-পোশাকের জেরেই ধর্ষণের মতো ঘটনা বাড়ছে।

দেহব্যবসা রুখতে একটি নতুন আইন নিয়ে এক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে আলোচনার অংশ নিয়ে আল-ওহাস বলেন, নৈতিকতার সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে নারীদের। ছেঁড়া জিন্স পরে নারীরা অঙ্গ প্রদর্শন করলে কি আপনারা খুশি হবেন? যে নারীরা এমন পোশাক পরবেন তাঁদের ধর্ষণ করা প্রত্যেক দেশবাসীর কর্তব্য।

তিনি বলেন, নারীদের নিজেদের প্রতি সম্মান থাকা উচিত। এমনটা হলে অন্যরাও তাদের প্রতি সম্মান দেখাবে। সীমান্ত রক্ষার চাইতেও গুরুত্বপূর্ণ নৈতিকতা রক্ষা।

নারীদের নৈতিকতার পাঠ শেখানো উচিত বলেও ওই অনুষ্ঠানে মন্তব্য করেন তিনি। তবে তার এমন মন্তব্যের প্রতিবাদে মিশর জুড়ে তীব্র সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। এই মন্তব্যের প্রতিবাদে আইনি লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিচ্ছে ‘দ্য ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর উইমেন’। নারীদের বিরুদ্ধে হিংসা ছড়ানোর অভিযোগে অনুষ্ঠানের আয়োজক চ্যানেলটির বিরুদ্ধে ওই সংগঠনটি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানানো হয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares