নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দূর করার ঘরোয়া উপায়!

সাধারণত মুখগহ্বরের স্বাস্থ্য ভালো না থাকলেই নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ হয়। আপনার দাঁত বা মাড়িতে কোনও সমস্যা আছে কিনা। যাঁরা সাইনুসাইটিসের সমস্যায় ভুগছেন, পোস্ট নেজ়াল ড্রিপ হয় সারাক্ষণ, ক্রনিক অ্যাসিড রিফ্লাক্স আছে, লিভার বা কিডনির সমস্যায় ভোগেন, তাঁদের শ্বাসেও দুর্গন্ধ হওয়ার আশঙ্কা আছে। তাই দীর্ঘদিন মুখের দুর্গন্ধ আপনাকে বিব্রত করলে একবার ডাক্তার দেখিয়ে জেনে নিন সমস্যাটা ঠিক কেন এবং কোথায় হচ্ছে এবং সেই মতো সমাধান খুঁজে বের করুন।

যে সব ঘরোয়া পদ্ধতি শ্বাসের দুর্গন্ধ কমাতে সাহায্য করে-

১। দিনে অন্তত দু’বার দাঁত মাজুন। সেই সঙ্গে দাঁতের ফাঁকে আটকে থাকা খাবারের কণা পরিষ্কার করতে ব্যবহার করুন ফ্লস। শেষে মুখ ধুয়ে নিন মাউথওয়াশ দিয়ে। প্রতিদিন সকালে জিভ পরিষ্কার করতে ভুলবেন না। এই প্রাথমিক স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে মুখের অভ্যন্তরে ব্যাকটেরিয়া জন্মাতে পারবে না।

২। মৌরি আপনার শ্বাসের গন্ধকে করে তোলে সুমিষ্ট। তাই খাওয়াদাওয়ার পর মুখশুদ্ধি হিসেবে মৌরির ব্যবহার আয়ুর্বেদ অনুমোদন করে। চুইংগামের বদলে ব্যাগে এক কৌটো শুকনো ভাজা মৌরিও রাখতে পারেন।পুদিনা বা তুলসীপাতাও একইভাবে কার্যকর।

৩। পাতিলেবু বা কমলালেবুর খোসা ভালো করে ধুয়ে শুকিয়ে রাখতে পারেন। তা চিবিয়ে নিলেও মুখের দুর্গন্ধের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

৪। যাঁরা ডেঞ্চার পরেন, তাঁরা রাতে শুতে যাওয়ার আগে অবশ্যই ডেঞ্চার খুলে রেখে মুখ ভালো করে ধুয়ে ঘুমোতে যাবেন। তা না হলে ব্যাকটেরিয়া জন্মাবে ও মুখগহ্বরের স্বাস্থ্যহানি হবে।

৫। লবঙ্গও নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ কমাতে ও শ্বাসে তরতাজা ভাব ফিরিয়ে আনতে খুব কার্যকর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *