নিজে দাঁড়িয়ে থেকে স্ত্রীর বিয়ে দিলেন স্বামী!

বিয়ের কয়েক দিনের মধ্যেই জানতে পারেন অন্য কাউকে ভালবাসেন তার স্ত্রী। মাত্র এক সপ্তাহ আগে বিয়ে হয়েছিল দু’জনার। এখনো মধুচন্দ্রিমার স্বাদও নেওয়া হয়ে উঠেনি। নববিবাহিতা সেই স্ত্রীকে নিজে দাঁড়িয়ে থেকে বিয়ে দিলেন তাঁর স্বামী।

শনিবার এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের ওড়িশ্যার রাউরকেল্লার সুন্দরগড়ে। খবর অনুযায়ী, সেখানকার পামারা গ্রামের বাসিন্দা বাসুদেব টাপ্পো নিজের স্ত্রীরই বিয়ে দিয়ে রীতিমতো সাড়া ফেলে দিয়েছেন।

জানা গেছে, গত ৪ মার্চ ২৮ বছরের বাসুদেবের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল ঝাড়সুগুদার বাসিন্দা ২৪ বছর বয়সি এক তরুণীর। স্থানীয় রীতি মেনে দু’জনের বিয়ে হয়েছিল। আইনি কোনো প্রক্রিয়া মেনে বিয়ে হয়নি।

বিয়ের পরেই অবশ্য গল্পে অন্য মোড় আসে। গত শনিবার নববিবাহিত তরুণীর পরিচিত পরিচয় দিয়ে তিন যুবক বাসুদেবের বাড়িতে আসেন। তাদের মধ্য একজন নিজেকে তরুণীর চাচাতো ভাই বলে পরিচয় দেন। কিছুক্ষণ পর বাসুদেবকে নিয়ে গ্রামে ঘুরতে বেরিয়ে যান দুই যুবক। কিন্তু ওই চাচাতো ভাই বাসুদেবের বাড়িতে থেকে যান।

অভিযোগ, তখনই বাসুদেবের স্ত্রীর সঙ্গে সেই চাচাতো ভাই হিসেবে পরিচয় দেওয়া সেই যুবককে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় দেখে ফেলেন কয়েকজন গ্রামবাসী। যুবককে ঘিরে ধরে মারধর শুরু করেন তাঁরা। তখনই বাসুদেবের স্ত্রী স্বীকার করেন, সেই যুবক আসলে তার সাবেক প্রেমিক। বিয়ের আগে দু’জনের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু তরুণীর বাড়ি থেকে সেই সম্পর্ক মেনে নেয়নি।

বিষয়টি জানতে পেরে বাসুদেব সিদ্ধান্ত নেন, স্ত্রীর প্রেমিকের সঙ্গেই তার বিয়ে দেবেন। এরপর শ্বশুরবাড়ির লোকজনকেও ডেকে পাঠান বাসুদেব। খবর দেওয়া হয় স্ত্রীর প্রেমিকের বাড়িতেও। বাসুদেবের বলেন, তিনি যদি এই সিদ্ধান্ত না নিতেন, তাহলে তিনটি জীবন নষ্ট হতো। বাসুদেবের মাও ছেলেকে সমর্থন করেছেন। ঘটনা বুঝতে পেরে গ্রামবাসীরাও সমর্থন করেন তাঁকে।

এদিকে ওই তরুণী বলেন, বাসুদেবের এই ঋণ তিনি কোনোদিন শোধ করতে পারবেন না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *