পদ্মা সেতু প্রকল্পে ব্যয় বাড়লো ১৪০০ কোটি টাকা

সরকারের অগ্রাধিকার প্রকল্প পদ্মা সেতু। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে এটি চালুর লক্ষ্য রয়েছে। প্রকল্পের নদীশাসন কার্যক্রম চলমান রাখতে অতিরিক্ত ১১৬২.৬৭ হেক্টর জমি অধিগ্রহণ করছে সরকার। এজন্য আরও ১৪০০ কোটি টাকা ব্যয়ে অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় পদ্মা সেতু প্রকল্পের জন্য এই অর্থ অনুমোদন দেয়া হয়।

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, অতিরিক্ত জমি অধিগ্রহণের অভাবে প্রকল্পের নদীশাসন কাজ ব্যাহত হচ্ছিল।

এদিন আরও ১৪টি প্রকল্প একনেকে অনুমোদিত হয়েছে। একনেক সভা শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

তিনি বলেন, জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় ১৫টি প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এই ১৫টি প্রকল্প বাস্তবায়নে জন্য মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ১৮ হাজার ৩৭২ কোটি টাকা।

পদ্মা সেতুর অতিরিক্ত ভূমি অধিগ্রহণ প্রকল্প সম্পকে তিনি জানান, ‘পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণ’ প্রকল্পের জন্য অতিরিক্ত ১ হাজার ১৬২ দশমিক ৬৭ হেক্টর ভূমি অধিগ্রহণের জন্য অতিরিক্ত ১ হাজার ৪০০ কোটি টাকার প্রস্তাব অনুমোদন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পদ্মা সেতু প্রকল্পে এর আগে মোট ব্যয় ধরা হয়েছিল (মূল সেতুতে তৃতীয় দফায় বাড়ানোসহ) ৩০ হাজার ৭৯৩ কোটি ৩৯ লাখ টাকা।

একনেকে অনুমোদিত আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প হচ্ছে বাংলাদেশে ই-পাসপোর্ট ও স্বয়ংক্রিয় বর্ডার নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থাপনা প্রবর্তন প্রকল্প। মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট প্রকল্প চালু করার পর এবার সরকার ই-পাসপোর্ট প্রকল্প গ্রহণ করেছে সরকার।

Leave a Reply