পরিচালকের হেনস্তার কথা ফাঁস করলেন কঙ্গনা

অভিনেতা নানা পাটেকর, পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীর বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ তুলে বলিপাড়ায় হইচই ফেলে দিয়েছেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। এ নিয়ে পক্ষে বিপক্ষে চলছে নানা আলোচনা। এরই মধ্যে পরিচালক বিকাশ বহলের হেনস্তার কথা ফাঁস করলেন কঙ্গনা রাণৌত।

বলিউডের নামি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ফ্যান্থম ফিল্মস। এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন বিকাশ বহেল। গতকাল প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটি আর থাকছে না বলে ঘোষণা দেন এর প্রধানরা। এরপর বিকাশ বহেলের বিরুদ্ধে অনেকেই নানা অভিযোগ তুলছেন। এ নির্মাতার পরিচালনায় কুইন সিনেমায় অভিনয় করেন কঙ্গনা। এক সাক্ষাৎকারে বিকাশের হেনস্তার কথা তুলে ধরেন তিনি।

কঙ্গনা বলেন, ‘২০১৪ সালে কুইন সিনেমার শুটিংয়ের সময় বিকাশ বিবাহিত ছিল। কিন্তু প্রতিদিনই তার নতুন শয্যাসঙ্গী থাকত। আমি কাউকে তার বিবাহিত জীবন দিয়ে যাচাই করছি না কিন্তু নেশা কখন অসুস্থতায় রূপ নেয় সেটি আপনি অবশ্যই বুঝতে পারবেন। সে প্রতি রাতে পার্টি করত, এমনকি আমি তাড়াতাড়ি ঘুমিয়ে পড়ি বলে কটাক্ষ করত।’

বিকাশ বহেল
তিনি আরো বলেন, “আমি প্রায়ই তাকে নানা কথা বলতাম। সে আমাকে ভয়ও পেতো কিন্তু প্রতিবারই আমার সঙ্গে তার যখন দেখা হতো, একে অপরকে আলিঙ্গন করতাম। সে আমার কাঁধে নাক গুজে দিত, আমাকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরত এবং আমার চুলের গন্ধ নিত। তার আলিঙ্গন থেকে ছুটতে আমার অনেক শক্তি ব্যয় করতে হতো। সে বলত, ‘আমি তোমার চুলের গন্ধ খুব পছন্দ করি।”

বিকাশ বেহেলের বিরুদ্ধে হেনস্তার অভিযোগ তুলেছিলেন এক নারী। তখন সেই নারীর পক্ষে কথা বলেছিলেন কঙ্গনা। এ জন্য বিকাশের একটি সিনেমায় কাজ করতে পারেননি এ অভিনেত্রী। তানু ওয়েডস মানু সিনেমাখ্যাত এ অভিনেত্রী বলেন, ‘সেই সময় হরিয়ানার একজন সোনা বিজয়ীর একটি চিত্রনাট্য নিয়ে বিকাশ আমার কাছে এসেছিল। যখন আমি ওই মেয়ের পক্ষ নিই, সে আমার সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে দেয়। এটি ভালো চিত্রনাট্য হারিয়েছে তবু আমার কিছু মনে হয়নি। আমিও তাকে ফোন করিনি। আমি নিশ্চিত ছিলাম, যা বলেছি ঠিক। তারপর বিষয়টি চাপা পড়ে, আমি এর কোনো আপডেট পাইনি।’

কঙ্গনার পরবর্তী সিনেমা মণিকর্ণিকা : দ্য কুইন অব ঝাঁসি। সিনেমাটি পরিচালনা করছেন তেলেগু পরিচালক রাধাকৃষ্ণ জাগারলামুড়ি। তবে তিনি কৃষ নামেই পরিচিত। এতে কঙ্গনা রাণৌত ছাড়াও অভিনয় করছেন-অতুল কুরকার্নি, অঙ্কিতা লোখান্ডে, যীশু সেনগুপ্ত, তাহের সাব্বির প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *