পশ্চিমবঙ্গে নজিরবিহীন পদক্ষেপ নিলো নির্বাচন কমিশন

ভারতে এই প্রথম কোনও রাজ্যে ৩২৪ ধারা প্রয়োগ করল দেশটির নির্বাচন কমিশন। দিল্লি থেকে উপ নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন সাংবাদিক সম্মেলন করে বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে দিল্লির নির্বাচন সদনে গিয়ে পশ্চিমবঙ্গে শেষ দফার নির্বাচন নিয়ে অভিযোগ জানানো হয়। কমিশনও এ রাজ্যে কী ঘটছে, সে বিষয়ে নজর রেখেছিল। এই দু’টি বিষয় পর্যালোচনা করার পর কমিশনের তরফে এই পদক্ষেপ করা হয়েছে।

লোকসভা নির্বাচনে তৃতীয় বৃহত্তম রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ।সেখানে নরেন্দ্র মোদির বিজেপি তৃণমূল কংগ্রেসকে সরিয়ে ক্সমতা নিতে চায়। মঙ্গলবার বিজেপির শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সংহিসতার ঘটনায় ইতোমধ্যে পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতার রাজপথে টহল দিচ্ছে সেনা সদস্যরা। পুলিশ জানায়, তৃণমূল কংগ্রেসের কোনও সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়নি। তবে স্বাধীন নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, তারা এই সহিংসতার বিরুদ্ধে তদন্ত করবে।

ইতোমধ্যে সব দলের নির্বাচনী প্রচারণা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন তারা। রাজ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি এবং পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা না পাওয়ার কারণ দেখিয়ে নজিরবিহীন ভাবে আগামিকাল শুক্রবার রাত দশটার পর থেকে রাজ্যে শেষ দফার ভোট প্রচার বন্ধ করে দেয় তারা।

আগামী ১৯ মে এই রাজ্যে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হগবে। সপ্তম তথা শেষ দফার নির্বাচনে এ রাজ্যে দমদম, বারাসত, বসিরহাট, জয়নগর, মথুরাপুর, ডায়মন্ড হারবার, যাদবপুর, উত্তর ও দক্ষিণ কলকাতা কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ। এই সব কেন্দ্রগুলিতে ১৬ মে বৃহস্পতিবার রাজনৈতিক দলগুলি প্রচারের শেষ সুযোগ পাবে।