পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় ৩ মামলা, গ্রেপ্তার ৪০

রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের ওপর হামলা ও দুটি গাড়িতে আগুন দেয়ার ঘটনায় পল্টন থানায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিনটি মামলার দুইটিতে মির্জা আব্বাসকে আসামি করা হয়েছে। আরও কয়েকজন সিনিয়র নেতার নাম আছে। তাৎক্ষণিকভাবে ওসি বিস্তারিত জানাতে পারনেনি।

এ ঘটনায় ৪০ জন গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং ঘটনাস্থলে উপস্থিতদের মধ্য থেকে জড়িত সন্দেহে আরো ৩০ জনকে শনাক্ত করা হয়েছে।

বুধবার রাতে ঢাকা মেট্রোপলিটান পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া একটি বেসরকারি টেলিভিশনের লাইভ প্রোগ্রামে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

পুলিশ কর্মকর্তারা জানান, এ হামলা পূর্বপরিকল্পিত। সেটা না হলে কীভাবে নয়াপল্টনের সামনে বিএনপি সমর্থকদের হাতে শত শত লাঠি থাকবে? কেন শত শত নেতাকর্মী হেলমেট পরে সেখানে যাবে? পুলিশের উসকানিতে হামলা হয়েছে এমন কোনো আলামত ও ফুটেজ কেউ দেখাতে পারবে না বলে দাবি তাদের।

তবে বিএনপি নেতারা বলছেন, পুলিশ বিনা উসকানিতে হামলা করেছে। নির্বাচনী পরিবেশকে অশান্ত করতেই এ ঘটনার সূত্রপাত বলে দাবি তাদের।

পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা জানান, এরই মধ্যে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ও আশপাশ এলাকার সিসিটিভির ফুটেজ সংগ্রহ করে তা পর্যালোচনা করা হচ্ছে। যারা হেলমেট পরে জ্বালাও-ভাঙচুরে নেতৃত্ব দিয়েছেন, তাদের শনাক্ত করছে পুলিশের একাধিক টিম।

এ ব্যাপারে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, অন্যায়ভাবে বিএনপি কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে পুলিশ নির্বাচনের পরিবেশ নষ্ট করছে। তিনি আরও বলেছেন, ‘ছাত্রলীগের হেলমেট বাহিনী এসে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করেছে ও আগুন দিয়েছে।

ঘটনার পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, নির্বাচন বানচাল করার উদ্দেশ্যে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের ওপর হামলা হয়েছে। পুলিশের ওপর হামলা ও গাড়ি পোড়ানোর সময় বিএনপি নেতাকর্মীদের যে উচ্ছ্বাস দেখা গেছে, তা-ই বলে দেয় এ হামলা করা হয়েছে আগে থেকে পরিকল্পনা করে।

এদিকে পুলিশের পওর হামলাকারীর ছবি ফেসবুকে প্রকাশ করে তার খোঁজ চেয়েছে ডিএমপি। সিটিটিসির উপকমিশনার মহিবুল ইসলাম খান তিনি বলেন, পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগকারী ওই ব্যক্তিকে আমরা খুঁজছি। নাগরিকদের অনুরোধ করছি, তার বিষয়ে কারো কাছে কোনও তথ্য থাকলে ডিএমপিকে উল্লেখিত নম্বরে জানান।

এ ঘটনার প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলা হলে পুলিশ ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছে, পাল্টা আক্রমণ করেনি। আমাদের ধৈর্য ধরতে হবে। প্রধানমন্ত্রী ধৈর্য ধরতে বলেছেন।

সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, বিএনপি বোমা-সন্ত্রাসের দল। দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করে তারা শেখ হাসিনার সরকারকে উৎখাত করতে চায়।