ফেসবুকসহ জনপ্রিয় সোস্যাল মিডিয়াগুলো বন্ধ করছে ভারত?

সম্প্রতি ভারতে কয়েকটি রাজ্যেে ভুয়া সংবাদ ও হিংসাত্মক ভিডিও বার্তা ছড়িয়ে অস্থিরতার সৃষ্টি হয়েছে।এই পরিপ্রেক্ষিতে ফেসবুকসহ অন্যান্য ইন্টারনেট নির্ভর সোস্যাল মিডিয়াগুলো বক্ল করার কথা ভাবছে ভারত সরকার। এ ছাড়া জাতীয় নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ায় এই সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে মনে করা হচ্ছে। এ বিষয়ে ইতোমধ্যে টেলকো প্রতিষ্ঠানগুলোকে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে দেশটির প্রশাসন।

জানা গেছে, টেলকো প্রতিষ্ঠানগুলোকে দেয়া নির্দেশনায় ওই সোস্যাল মিডিয়াগুলো বন্ধে নতুন উপায় খুঁজতে বলা হয়েছে। ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৬৯-এ ধারা বলছে, দেশের সার্বভৌমত্ব ও ঐক্য, প্রতিরক্ষা, নিরাপত্তা, বৈদেশিক রাষ্ট্রের সঙ্গে বন্ধুত্ব বিঘ্নিত বা ক্ষতিগ্রস্ত হলে কেন্দ্রীয় সরকার ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রেরিত তথ্যকে ব্লক করতে পারে।

ভারতের টেলিকমিউনিকেশন্স বিভাগ গত ১৮ জুলাই ইন্টারনেট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানগুলোকে জানায়, ইনস্টাগ্রাম, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ এবং এই জাতীয় মোবাইল অ্যাপ বন্ধে বিভিন্ন সম্ভাব্য বিকল্প উপায় বের করতে নির্দেশনা দেয়া হলো।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের দ্বারা ভাইরাল হওয়া গুজব ও মিথ্যা খবরের কারণে ভারতের কয়েকটি  রাজ্যে গণপিটুনিতে হত্যার ঘটনা ঘটেছে।

সূত্র: টাইমস অব ইন্ডিয়া, রয়টার্স

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *