বর-কনেকে গুলি করে হত্যা

পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে হত্যার ‘অনার কিলিংয়ের’ ঘৃণ্য দৃষ্টান্ত তৈরি হলো পাকিস্তানে। এবার অনুমোদনহীন সম্পর্কের জন্য নয়, স্রেফ বিয়ের আগে কথা বলার জন্য গুলি করে হত্যা করা হয়েছে হবু বর ও কনেকে। বৃহস্পতিবার এই ঘটনা ঘটে পাকিস্তানের সিন্ধু প্রদেশে।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ঘোটকি এলাকার নায়ি ওয়াহি গ্রামের নাজিরন তার হবু বর শহীদের সঙ্গে কথা বলছিল, এ সময় নাজিরনের মামা তা দেখে ফেলে। মামা রাগের মাথায় তখনই তাদের ওপর গুলি চালায়।

পুলিশ জানায়, নাজিরন ও শহীদ দুজনে চাচাতো ভাইবোন ছিল। কয়েক দিন পরই তাদের বিয়ের পিঁড়িতে বসার কথা। পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে (‘অনার কিলিং’) এই হত্যা করা হয়েছে। তাদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। মামাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পাকিস্তানে প্রায়ই পরিবারের সদস্যেদের দ্বারা এ রকম হত্যাকাণ্ড ঘটে, বেশির ভাগ ক্ষেত্রে শিকার হয় নারীরা। পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে এই হত্যাকে নারীর প্রতি সহিংসতা হিসেবে দেখছে মানবাধিকার কর্মীরা। পাকিস্তান মানবাধিকার কমিশনের তথ্যমতে প্রতিবছর পরিবারের সম্মান রক্ষার নামে ৬৫০টি হত্যাকাণ্ড ঘটে।

Leave a Reply