বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ সাব্বির

শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে নতুন বছরে বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকছেন না সাব্বির রহমান। শুধু কেন্দ্রীয় চুক্তিতেই নয়, ঘরোয়া ক্রিকেটেও ছয় মাস নিষিদ্ধ করা হয়েছে তাকে। পাশাপাশি ২০ লাখ টাকা জরিমানাও গুনতে হবে।

সোমবার ধানমন্ডির বেক্সিমকো ভবনে গণমাধ্যমে এ ঘোষণা দেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

সাব্বিরকে কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেওয়া, নিষেধাজ্ঞা ও জরিমানার বিষয়ে নাজমুল হাসান বলেন, ‘আমাদের যে কেন্দ্রীয় চুক্তি আছে ওটা থেকে ও বাদ পড়ছে। সাব্বির আমাদের কেন্দ্রীয় চুক্তির খেলোয়াড় আর থাকছে না। বোর্ডের চুক্তি থেকে একটা খেলোয়াড় কিন্তু অনেক টাকা পায়। এর সঙ্গে আছে ২০ লাখ টাকা জরিমানা। ঘরোয়া ক্রিকেটে ছয় মাস খেলতে পারবে না। তার মানে সে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগও খেলতে পারবে না। বিপুল অঙ্কের জরিমানা। সামনে বোর্ড সভায় সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হবে।’

ওয়ালটন ১৯তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডের খেলা হয়েছিল রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে। ২০ ডিসেম্বর সেখানে চারদিনের খেলা শুরু হয়। পরদিন দ্বিতীয় দিনে মধ্যাহ্ন বিরতির পর ইনিংস বিরতির সময় মাঠের সাইট স্ক্রিনের পেছনে এক কিশোরকে পেটান সাব্বির। কিশোরের দোষ ছিল, মধ্যাহ্ন বিরতিতে যাওয়ার সময় ড্রেসিং রুমের কাছের গ্যালারি থেকে সাব্বিরকে ‘বিড়াল’ এবং ‘মেয়াও’ বলে ডাক দেন। ধূসর চোখের কারণে সাব্বিরকে ‘বিড়াল’ বলে সম্বোধন করেছিল সে। পরবর্তীতে স্থানীয় পরিচিতদের দিয়ে ওই কিশোরকে ডেকে আনেন সাব্বির। পরবর্তীতে ওই কিশোরকে পেটান জাতীয় দলের এ ক্রিকেটার।

ম্যাচ রেফারির রিপোর্টের ভিত্তিতে বিষয়টি তদন্ত করা হয় এবং তদন্তে সাব্বির রহমানকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়।

যদি বলা হয় জাতীয় দলের ক্রিকেটার সাব্বির রহমান দিনকে দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছেন, তাহলেও ভুল হবে না! বিপিএলে আম্পায়ারকে গালি দিয়ে বড় অঙ্কের জরিমানা গুনেছিলেন সাব্বির। বিপিএলের আগের আসরেও তিনি জরিমানা গুনেছিলেন ‘সিরিয়াস’ ঘটনার কারণে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *