বুধবারের মধ্যে কোটা সংস্কারের প্রজ্ঞাপন, নইলে ফের আন্দোলন

বুধবারের মধ্যে প্রজ্ঞাপনের আলটিমেটাম দিয়েছেন সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সংগঠন সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতারা।

এ দাবিতে আগামীকাল বুধবার সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বেলা ১১টায় মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন তারা।

আজ(মঙ্গলবার) বেলা ১১ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ আলটিমেটাম দেন তারা।

এসময় সংগঠনটির আহ্বায়ক হাসান আল মামুন, যুগ্ম-আহ্বায়ক নুরুল্লাহ নূরসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

যুগ্ম-আহ্বায়ক নুরুল্লাহ নূর বলেন, ছাত্রসমাজ আন্দোলন ছেড়ে ক্লাসে চলে গেছে। প্রজ্ঞাপন জারি না হলে আবারও তারা আন্দোলনে আসবেন।

তিনি বলেন, আমাদের দেয়া সময়সীমা শেষ হয়েছে। এখনো কমিটি হয়নি, প্রজ্ঞাপন জারি হয়নি। বুধবারের মধ্যে প্রজ্ঞাপন জারি করতে হবে।

এদিকে, সোমবার মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার নিয়ে শিগগির প্রজ্ঞাপন জারি হবে।

কোটা সংস্কারের আন্দোলনের মুখে গেলো ১১ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে ঘোষণা দেন- কোনো কোটা থাকবে না। সব কোটা বাতিল করা হবে।

এ ঘোষণার প্রায় এক মাস পূর্ণ হতে গেলেও কোটা সংস্কার বাস্তবায়নের অগ্রগতি চোখে পড়েনি।

গেলো সপ্তাহে সংবাদ সম্মেলনে শেখ হাসিনা আবারও স্পষ্ট করেন- কোটা প্রথা থাকছে না।

মোহাম্মদ শফিউল আলম জানান, সরকারি চাকরিতে কোটা নিয়ে কোনো অগ্রগতি নেই। এ বিষয়ে কোনো দিকনির্দেশনাও নেই। তবে অতি শিগগির এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এদিকে কোটা সংস্কার বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারির জন্য আন্দোলনকারীদের দেয়া সময়সীমা আজই শেষ হচ্ছে। এ বিষয়ে সাংবাদিকেরা জানতে চেয়েছিলেন, কোটা নিয়ে কোনো অগ্রগতি আছে কি না?

জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘এ নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি। এবং অগ্রগতিও নেই।’ কোটা বাতিলের প্রক্রিয়া সম্পর্কে তিনি বলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাব আসার পর প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

Leave a Reply