‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মানসম্পন্ন উচ্চশিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে’

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে মানসম্পন্ন উচ্চশিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে আরো সচেতন হতে হবে। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মানসম্পন্ন উচ্চ শিক্ষা নিশ্চিত করতে হবে।

ব্যবসা ও মুনাফার চিন্তা ত্যাগ করে জনকল্যাণ, সেবার মনোভাব ও শিক্ষায় অবদান রাখার দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। এজন্য শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করা ও পরিচালনা ব্যবস্থার মান উন্নয়ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

শিক্ষামন্ত্রী আজ শনিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইউনিভার্সিটি অব সাউথ এশিয়ার প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতির প্রতিনিধি হিসেবে সভাপতির বক্তৃতায় একথা বলেন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে ইউনিভার্সিটি অব সাউথ এশিয়ার বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. এম এ মুহিত, উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম এ ওয়াদুদ মণ্ডল এবং লিপিং বাউন্ডারিজ এর প্রতিষ্ঠাতা প্রকল্প পরিচালক শাগুফে হোসেন বক্তব্য রাখেন। সমাবর্তন বক্তা ছিলেন নাগরিক টিভির চিফ অপারেটিং অফিসার ডা. আবদুন নূর তুষার।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, কিছু বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় এখনও তাদের নূন্যতম শর্ত পূরণ করতে পারেনি। এভাবে তারা বেশীদিন চলতে পারবেন না। যে সকল বিশ্ববিদ্যালয় পরিবেশ ও নির্ধারিত শর্ত পূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছে, যারা নিজস্ব ক্যাম্পাসে এখনো যাননি এবং একাধিক ক্যাম্পাসে পাঠদান পরিচালনা করছেন তাদের বিরুদ্ধে অব্যাহত চাপ রেখেও সঠিক ধারায় আনা কঠিন হয়ে পড়েছে। এজন্য তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ছাড়া তারা আর কোন পথ খোলা রাখেননি।

তিনি বলেন, সরকারি বা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নকারী ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে সরকার কোন পার্থক্য করে না। তারা সকলেই দেশের সন্তান এবং জাতির ভবিষ্যত। তাদের সকলের জন্যই সরকার মানসম্মত শিক্ষা এবং সকল সুযোগ নিশ্চিত করতে চায়। তিনি দেশের বাস্তবতা এবং জনগণের আর্থ-সামাজিক অবস্থা বিবেচনা করে শিক্ষার্থীদের ভর্তি ও টিউশন ফিসহ অন্যান্য ব্যয় একটি নির্দিষ্ট সীমা পর্যন্ত নির্ধারিত রাখতে উদার দৃষ্টিভঙ্গি গ্রহনের জন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কর্তৃপক্ষকে আহবান জানান।

নতুন প্রজন্মকে আধুনিক বাংলাদেশের নির্মাতা হিসেবে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তাদেরকে দায়িত্বশীল দেশপ্রেমিক নাগরিক হিসেবে বিজ্ঞান-প্রযুক্তিতে দক্ষ, সৎ এবং নৈতিক মূল্যবোধসম্পন্ন পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। জ্ঞান ও মেধার প্রয়োগে সৃজনশীল হওয়ার জন্য তিনি তাদের প্রতি আহবান জানান। পরে শিক্ষামন্ত্রী কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে এওয়ার্ড বিতরণ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares