ব্রেস্ট ক্যান্সার শনাক্তের ‘স্মার্ট’ পদ্ধতি!

জুলিয়ান রিওস ক্যান্টুর জীবনে অভিশাপের মতো এসেছিল স্তন ক্যানসার শব্দটা। যা তাঁর মায়ের জীবন শেষ করে দিয়েছিল। চোখের সামনে মাকে ছটফট করতে দেখেও কিছু করতে পারেননি। কারণ রোগ তখন অনেকটা ছড়িয়ে গিয়েছিল।

দ্বিতীয়বার স্তন ক্যানসার ধরা পড়ার পর মাকে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করতে দেখেছেন। তখনই যেন মনে মনে ঠিক করে নিয়েছিলেন আর কোনও মাকে এই পরিস্থিতিতে পড়তে দেবেন না। সেই দৃঢ়তার সঙ্গেই অসাধ্য সাধন করে ফেলেছেন এই ছাত্র। তৈরি করেছেন এমন একটি ব্রা, যা পরলেই স্তন ক্যানসার শনাক্ত করা যাবে।

একটি ভিডিওতে জুলিয়ান বলছেন, মাত্র ছ’মাসের মধ্যে চালের দানার মতো মাংস পিণ্ডের আকার বেড়ে গল্ফের বলের মতো হয়ে গিয়েছিল। মায়ের সেই যন্ত্রণা চোখে দেখতে কষ্ট হত ১৩ বছরের জুলিয়ানের। ক্যানসারের ফলে দু’টি স্তনই কেটে ফেলতে হয়েছিল তাঁর মাকে।

এমনকি প্রায় মৃত্যুর কোলেই ঢলে পড়েছিলেন তিনি। ডায়াগনোস করতে অনেক দেরি হয়েছিল। তারপরই ঠিক করে ফেলেন স্তন ক্যানসার চিহ্নিত করার সহজ উপায় বের করবেন।

দীর্ঘ গবেষণার পর মন্টেরির ইঞ্জিনিয়ার একটি অন্তর্বাস ডিজাইন করেন। যার পোশাকি নাম ইভা। অভিনব এই অন্তর্বাস তৈরি করে গ্লোবাল স্টুডেন্ট এন্টারপ্রাইনার পুরস্কারের ফাইনালস জিতে নেন তিনি। মোট ৫৬ টি দেশের ৫৬ জন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়েছিলেন। যার মধ্যে জুলিয়ানের তৈরি অন্তর্বাসই সেরা নির্বাচিত হয়েছে।

ইভার বিশেষত্ব হল, এতে এমন প্রযুক্তি রয়েছে যা স্তনের আকার, আকৃতি, রং এবং তাপমাত্রা সবই শনাক্ত করতে পারে। যা প্রথম স্তরেই ক্যানসার রয়েছে কি না তার ইঙ্গিত দিয়ে দেবে। প্রযুক্তির মাধ্যমে স্তনের পরিস্থিতির বিস্তারিত তথ্য মোবাইল অথবা ল্যাপটপে রেখে দিতে পারবেন। সন্দেহজনক কিছু মনে হলে চিকিৎসককে দেখিয়ে নিলেই সবটা পরিষ্কার হয়ে যাবে। উদাহরণ স্বরূপ বলা যেতে পারে, স্তনে টিউমার হলে রক্তক্ষরণ বা দেহের তাপমাত্রা বেড়ে যেতে পারে। স্তনের আকৃতিতেও পরিবর্তন আসতে পারে। সেক্ষেত্রে ওই ব্রা-ই পরিবর্তনগুলি বুঝিয়ে দেবে।

অনেকেই প্রশ্ন করছেন, ক্যানসার শনাক্ত করার জন্য অন্তর্বাসকেই বেছে নেওয়া হল কেন? ক্যানসার শনাক্তের জন্য আলাদা করে কোনও পরিশ্রম করতে হবে না। তাছাড়া প্রতি সপ্তাহে এক ঘণ্টা ব্যবহারই যথেষ্ট।

একটি মেক্সিকান সংবাদপত্রের খবর অনুযায়ী, অন্তর্বাসটি এখনও সরকারি স্বীকৃতি পায়নি। প্রশংসাপত্র পেতে বছর দুয়েক সময় লাগবে।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares