ভাগ্যের জোরে বেঁচে গেল চেন্নাই

২০তম ওভারের শেষ বল। দিল্লীর জয়ের জন্য ১ বলে লাগবে ৬ রান। চেন্নাই সুপার কিংসের বোলার ব্রাভো তখন বল হাতে দৌঁড় শুরু করেছেন। গোটা স্টেডিয়াম তখন নিরব। ব্যাট হাতে অপর প্রান্তে তখন দাঁড়িয়ে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের আলবি মরকেল।

বল করলেন ব্রাভো, ব্যাট হাতে উচু করে হাঁকালেন শট। বল দুর্বার গতিতে হাওয়ায় ভেসে ছুটে যাচ্ছে বাউন্ডারীর দিকে । সমগ্র স্টেডিয়াম তখন দাঁড়িয়ে পড়েছে। কিন্তু বলটি বাউন্ডারী পর হলো তবে মাঠে একটি বাউন্স খেয়ে। মাত্র দুই হাতের জন্য ছক্কা থেকে বঞ্চিত হলেন মরকেল। তাই চার রান যোগ হলো দিল্লীর রানের খাতায়। ফলে ১ রানে জয় পেল মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস। হারতে হলো যুবরাজের দিল্লীকে।

বৃহস্পতিবার চেন্নাইয়ের এমএ চিদাম্বরাম স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ১৫০ রান করে স্বাগতিক দল চেন্নাই। জবাবে ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৪৯ রানে থেমে যায় দিল্লির ইনিংস।

চেন্নাইয়ের সফলতম বোলার আশীষ নেহরার তোপে ৩৯ রানে তিন উইকেট হারিয়ে শুরুটা ভালো হয়নি দিল্লির। ২৫ রানে তিন উইকেট নেন বাঁহাতি পেসার নেহরা।

দলকে ৪ উইকেটে ৯৯ রানে পৌঁছে দেন মরকেল। তবে এরপরই যুবরাজ সিং ও জেপি ডুমিনির দ্রুত বিদায়ে আবার দিক হারায় দিল্লি। তবে জয়ের স্বপ্ন টিকে ছিল মরকেলের ব্যাটে। ৭৩ রানে অপরাজিত থাকেন মরকেল। তার ৫৫ বলের ইনিংসটি ৮টি চার ও ১টি ছক্কা সমৃদ্ধ।

Leave a Reply