ভুলে ভরা ঢাবির অধিভুক্ত কলেজের ফলাফল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত চার কলেজের বাণিজ্য বিভাগের স্নাতক (পাশ) শেষ বর্ষের ফলে নানা অসংঙ্গতি ও ভুল ধরা পড়ার খবর পাওয়া গেছে। এ রকম ভুলের কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে তিন বছরের কোর্সে ভর্তি হয়েছিলেন তারা। তবে ২০১৫ সালে কোর্স শেষ হওয়ার কথা থাকলেও ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে শেষ হয় তৃতীয় বর্ষের পরীক্ষা। দীর্ঘ এক বছর পর ফাইনাল পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হলেও তা ভুলে ভরা। এ কারণে ভালো পরীক্ষা দিয়েও অনেককে ফেল দেখানো হয়েছে। অনেকের খাতা হারিয়ে যাওয়ায় রেজাল্ট সিটে এনডাব্লিউডি দেখানো হয়েছে।

শিক্ষকদের দায়িত্বহীনতার প্রশ্ন তুলে এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘ঢাবির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের কাছে গিয়ে অভিযোগ করলেও তিনি তা আমলে নিচ্ছেন না। উল্টো আমাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করা হচ্ছে। কোন সমাধান দেয়া হচ্ছে না। কয়েক হাজার লিখিত অভিযোগ কন্ট্রলার অফিসে জামা হয়েছে। কবে এসব ভুল সঠিক করা হবে তাও বলা হচ্ছে না।’

এ প্রসঙ্গে ঢাবি উপাচার্য অধ্যাপক আক্তারুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, ‘হঠাৎ করে ঢাকার সাত কলেজ অন্তর্ভুক্তের সিদ্ধান্ত ছিল একটি অবৈজ্ঞানিক সিদ্ধান্ত। কোনো পরিকল্পনা ছাড়াই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। যার মাশুল আমাদের দিতে হচ্ছে। ঢাবিতে পাস কোর্স নেই। এ কারণে সাত কলেজের পাস কোর্স তুলে দেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে শেষ বর্ষের পরীক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ করা হচ্ছে। বাণিজ্য বিভাগের ফল প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী এক মাসের মধ্যে সব বিষয়ের ফল প্রকাশ করা হবে। ফল নিয়ে কারও আপত্তি থাকলে তা লিখিতভাবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের অফিসে অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। দ্রুতই সব ভুল-ভ্রান্তি সংশোধন করা হবে।