ভয়ভীতি ও ত্রাসমুক্ত নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র: মিলার

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে যুক্তরাষ্ট্র ভয়ভীতি ও ত্রাসমুক্ত দেখতে চায় বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন নতুন রাষ্ট্রদূত আর্ল রবার্ট মিলার।

রাজধানীর গুলশানে দলের চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে মঙ্গলবার বিএনপরি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে একথা জানান তিনি। দুপুর ১২টা ৫০ মিনিট থেকে বেলা ২টা পর্যন্ত এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

আর্ল রবার্ট মিলার বলেন, তারা মনে করেন- ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে দেওয়া উচিৎ এবং নির্বাচনে বিরোধী দলে যেসব প্রার্থী আছে তাদের সমানভাবে প্রচারণা চালানোর সুযোগ দেওয়া উচিৎ।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র চায়- বাংলাদেশে একটি অবাধ, সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য, অংশগ্রহনমূলক এবং শান্তিপূর্ণ জাতীয় নির্বাচন হোক। নির্বাচনে সহিংসতার বিষয়ে যেসব রিপোর্ট দেখছি তাতে আমরা উদ্বিগ্ন। এ ব্যাপারে তাদের অবস্থান হলো- যে কোন সহিংসতাকে পরিহার করা এবং একে নিন্দা জানানো।

মিলার বলেন, যুক্তরাষ্ট্র মনে করে নির্বাচনের পদ্ধতি কার্যকর হবে না যদি না সবাই নির্বাচনী প্রক্রিয়া সমানভাবে অংশগ্রহণ করতে না পারে।

বৈঠকে অংশ নেওয়া নেতাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, কারাবন্দি খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা ও নির্বাচনে অংশ নেওয়া ধানের শীষের প্রার্থীসহ বিরোধী দলের নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তারের বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে সেখানে।

বৈঠক শেষে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাংবাদিকদের বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত সৌজন্য সাক্ষাৎকারে এসেছেন। বর্তমান নির্বাচনের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তারা এখানে ভয়ভীতি ও ত্রাসমুক্ত নির্বাচন দেখতে চান, সবার কাছে গ্রহণযোগ্য সকলের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে একটা সুষ্ঠু অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন দেখতে চান। এটাই হচ্ছে তাদের সবচেয়ে বেশি প্রত্যাশা।

তারা মনে করেন, ভোটাদেরকে ভোট কেন্দ্রে যেতে দেওয়া উচিৎ। কোনো প্রার্থীর ওপর যাতে কোনো আক্রমণ না হয়, সহিংসতা যেন না হয়- এক কথায় শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া উচিৎ। বিরোধী দল যারা আছেন তাদের প্রচারণাও যাতে নিরাপদে করতে পারে তা নিশ্চিত করা উচিৎ বলে মার্কিন রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন।

বৈঠকে বিএনপি মহাসচিব ছাড়া ছিলেন দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ ও নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল উপস্থিত ছিলেন।