মেয়েদের কুমারীত্বের পরীক্ষা দিতে হয় আফগানিস্তানে

নারীদের সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণে প্রায়ই আফগানিস্তানের নাম উঠে আসে। এখানে ছোট থেকে বড় বিভিন্ন বিষয়ে নারীদের নির্যাতন করা হয়। এমনকি বিয়ে দেওয়ার আগে কোনও নারীর চরিত্র নিয়ে সন্দেহ হলে তার কুমারীত্বের পরীক্ষা করাতে বাধ্য করা হয়।

সম্প্রতি এমনই প্রথার শিকার হতে হয় ১৮বছরের এক আফগানি কিশোরীকে। সংবাদ মাধ্যমকে নিজের থেকে সেই কিশোরী তার অভিজ্ঞতার কথা জানায়।

সেই কিশোরী জানায়, এক বার রাতে সিনেমা দেখে বাড়ি ফিরতে দেরি হয়ে যাওয়ায় তার দুই পুরুষ বন্ধুকে বাড়ি পর্যন্ত ছেড়ে দিয়ে আসতে বলে। কিন্তু এর পরিণাম যে পরবর্তীকালে ভয়ঙ্কর হতে পারে তা সে স্বপ্নেও হয়তো ভাবতে পারেনি। এই কারণে তার বিরুদ্ধে বিয়ের আগে শরীরিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগ ওঠে। তাকে কুমারীত্বের পরীক্ষা করতে বাধ্য করা হয়।

পরীক্ষার পর চিকিৎসক জানায় যে, সেই কিশোরী এখনও কুমারী। কারও সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে জড়ায়নি। কিন্তু এতে কিশোরীর জীবনযাপনে বিশেষ কিছু সুবিধা হয়নি। এই সংক্রান্ত একটি মামলা এখনও আদালতে চলছে, যার থেকে মুক্তি পায়নি সে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares