যাত্রী পিষে মারার মামলায় বাস চালকসহ আটক ২

গাজীপুরে ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জেরে ধাক্কা দিয়ে বাস থেকে ফেলে চাকায় পিষ্ট করে যাত্রী সালাউদ্দিনকে হত্যা করা আলম এশিয়া পরিবহন বাসের চালক রোকন উদ্দিন (৩৫) ও কন্ডাকটর আনোয়ার হোসেন (২৮ )কে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে পুলিশ। জয়দেবপুর থানার উপ-পরর্দিশক (এসআই) আব্দুর রহমান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, রবিবার দুপুরে চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুর সদর উপজেলার বাঘেরবাজার এলাকায়।

নিহতের ছোট ভাই জামাল উদ্দিন জানান, ঈদের ছুটিতে স্ত্রীকে নিয়ে ময়মনসিংহের ফুলপুরে শ্বশুরবাড়ি থেকে গাজীপুরে কর্মস্থলে ফেরার পথে ‘আলম এশিয়া’ বাসে ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার সময় বাসের ভেতরে চালকের সহযোগীকে ‘ড্রাইভার’ পরিচয় দিয়ে সালাউদ্দিন ভাড়া কিছু টাকা কম রাখার জন্য অনুরোধ করেন। এই নিয়ে সালাউদ্দিন ও তার স্ত্রীর সঙ্গে চালকের সহযোগীর বাকবিতণ্ডা হয়।
এক পর্যায়ে চালকের সহযোগী লাথি মেরে সালাউদ্দিনকে ফেলে দেবে বাসের ভেতরে প্রকাশ্যেই হুমকি দেয়। ভয় পেয়ে সালাউদ্দিন তার ভাই জামালকে টেলিফোনে বাঘের বাজার বাসস্ট্যান্ডে এসে দাঁড়াতে বলেন। পরে জামাল আরো ৫-৬ জন লোক নিয়ে বাঘের বাজার দাঁড়িয়ে থাকেন। সালাউদ্দিন ও তার স্ত্রীকে বহনকারী আলম এশিয়ার দ্রুতগামী বাসটি স্ট্যান্ডে দাঁড়িয়ে থাকা স্বজনরা কিছু বোঝে উঠার আগেই সালাউদ্দিনকে বাস থেকে ফেলে দেয়। কিন্তু তার স্ত্রীকে নিয়ে বাস চলে যেতে থাকে। স্ত্রীকে না নামিয়ে বাস চলে যেতে থাকলে সালাউদ্দিন সড়ক থেকে উঠে গাড়ির সামনে গিয়ে গতিরোধ করার চেষ্টা করেন। এ সময় স্বজনদের সামনে ঐ বাসটি সালাউদ্দিনের ওপর উঠিয়ে দিলে সে মারা যায়। পরে নিহতের স্ত্রীকে বেশ দূরে নিয়ে গিয়ে মহাসড়কের পাশে নামিয়ে দিয়ে বাসটি রেখে চালক ও অন্যরা পালিয়ে যায়।