রিয়াল এবং সমর্থকদের রোনালদোর বিদায়ী বার্তা

রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে রোনালদো জুভেন্টাসে যাচ্ছেন বলে নিশ্চিত করেছে স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যম মার্কা। তাদের সংবাদ অনুযায়ী, ১০৫ মিলিয়ন ইউরোতে রিয়াল মাদ্রিদে যাচ্ছেন ৩৩ বয়সী ফরোয়ার্ড। আর রিয়াল ছাড়ার আগে রোনালদো রিয়াল মাদ্রিদ এবং ক্লাবের সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বিদয়ী বার্তা দিয়েছেন। নিম্মে তার খেলা দেওয়া বার্তাটি তুলে ধরা হলো:

‘সম্ভবত রিয়াল মাদ্রিদ এবং এই শহরে কাটানো বছরগুলো ছিল আমার জীবনের সবচেয়ে সুখের মুহূর্ত। এই ক্লাবের প্রতি, শহর এবং সমর্থকদের প্রতি আমার সীমাহীন কৃতজ্ঞতার স্মৃতিই আমার মনে উঁকি দিচ্ছে। আমি যে ভালোবাসা তাদের থেকে পেয়েছি তার জন্য কেবল ক্লাব এবং সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাতে পারি।

যাহোক আমার মনে হয় যে, সময়টা আমার জীবনের নতুন এক দোয়ার খুলে দিয়েছে। আর সেই কারণে আমি ক্লাবকে অনুরোধ করেছি আমার দলবদলের চুক্তিটা মেনে নিতে। আমি বিষয়টা এভাবেই অনুভব করেছি এবং অনেকের সঙ্গে কথা বলেছি। সমর্থকদের বলবো বিষয়টা আমার মতো করে বোঝার জন্য। নয় বছর ধরে তারা আমার জন্য সত্যিই অসাধারণ ছিল। আমার কাছে এই নয় বছর অনন্য।

সামনের সময়টা আমার জন্য খুব উত্তেজনাপূর্ণ। বিষয়টি ঠিকঠাক বিবেচনা করলে রিয়ালে সময়টি আমার জন্য খুব কঠিন হতো। কারণ ক্লাবের অনেক প্রত্যাশা। তবে আমি খুব ভালো করে জানি, আমি কখনো ভুলবোনা যে আমি ফুটবল অন্যদের থেকে আলাদাভাবে উপভোগ করতে পারি। মাঠে এবং ড্রেসিংরুমে আমার অভূতপূর্ব কিছু সতীর্থ পেয়েছি।

পাঁচ বছরের মধ্যে আমরা তিনটি চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা জিতেছি। এটা ছিল আমাদের জন্য অনেক উষ্ণতম এক মুহূর্ত। ব্যক্তিগতভাবে রিয়ালে খেলে আমি চারটি ব্যালন ডি’অর এবং তিনটি গোল্ডেন বুট জিতেছি। যা আমার জন্য দারুণ এক স্মরণীয় মুহূর্ত।’

রিয়াল মাদ্রিদ আমার মন জয় করে নিয়েছে। এমনকি আমার পরিবারেরও। আর এজন্য অন্য যেকোন বারের থেকে বেশি বড় করে বলছি ধন্যবাদ। ক্লাব, সভাপতি, পরিচালক, সতীর্থ, আমার সকল কোচ, চিকিৎসক, ফিজিও এবং অন্যান্য স্টাফ’ এবং অনান্যরা যারা একাধারে কাজ করেছে সবাইকে ধন্যবাদ। আমার ভক্ত এবং স্প্যানিশ ফুটবলকে আরও একবার বিশেষ ধন্যবাদ। এই নয় বছর ধরে আমি দারুণ কিছু খেলোয়াড়ের সঙ্গে কাটিয়েছি। সবার প্রতি আমার সম্মান এবং স্বীকৃতি ব্যক্ত করছি।

আমি ক্লাব ছেড়ে যাচ্ছি কিন্তু যেখানেই থাকি আমার জর্সি, জার্সির প্রতীক এবং সান্তিয়াগো ব্যার্নারব্যু আমার কাছে আপন হয়েই  থাকবে। অবশ্যই সবাইকে ধন্যবাদ। নয় বছর আগে যেমন প্রথম বলেছিলাম ‘হালা মাদ্রিদ’ আবারও বলছি ‘হালা মাদ্রিদ।’

Leave a Reply