শান্তিতে নোবেল পেলো পরমাণু অস্ত্রবিরোধী সংগঠন ‘আইসিএএন’

বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠায় অনন্য অবদানের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে সম্মানজনক ও মূল্যবান নোবেল শান্তি পুরস্কার পেয়েছে পারমাণবিক অস্ত্রবিরোধী সংগঠন ইন্টারন্যাশনাল ক্যাম্পেইন টু অ্যাবলিশ নিউক্লিয়ার উইপনস (আইসিএএন)। নরওয়ের স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল ১১টা ও বাংলাদেশ সময় বিকেল ৩টার দিকে সংগঠনটির নাম ঘোষণা করা হয়। পরমাণু অস্ত্রমুক্ত বিশ্ব গড়তে প্রচারণা ও কাজ করার জন্য এই পুরস্কার দেয়া হয়।

এবার নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য ৩১৮ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে মনোনয়ন দেয়া হয় বলে গণমাধ্যমে সংবাদ বের হয়।

মনোনয়ন প্রাপ্ত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের তালিকায় নাম ছিল- ক্যাথলিক খ্রিস্টানদের ধর্মগুরু পোপ ফ্রান্সিস, জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেল, জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর), আমেরিকান সিভিল লিবার্টিস ইউনিয়ন, গাম্বিয়ায় শান্তি স্থাপনে ভূমিকা পালনকারী আঞ্চলিক জোট ইকোনমিক কমিউনিটি অব ওয়েস্ট আফ্রিকান স্টেটস (ইকোওয়াস), সিরিয়ার স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা হোয়াইট হেলমেটস এবং এর নেতা রিদ আল সালেহ, ইরানের পরমাণু চুক্তির মধ্যস্থতাকারী ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্র নীতিবিষয়ক প্রধান ফেদরিকা মোগেরিনি ও ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফের।

এছাড়াও ছিল আন্তর্জাতিক লায়ন্স ক্লাব, উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ, অভিনেতা লিওনার্দো ডি ক্যাপ্রিও, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পেরও নামও।

নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীতদের নাম বেশ গোপনীয়তার মধ্যে রাখা হয়। এরপরও অনেক সময় কারও কারও নাম প্রকাশ হয়ে যায়।

গেলো ৩ অক্টোবর থেকে এবারের নোবেল পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। চিকিৎসা, পদার্থ, রসায়ন ও সাহিত্য নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করেছে নোবেল কমিটি। ৯ অক্টোবর অর্থনীতিতে পুরস্কার বিজয়ীর নাম ঘোষণা রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *