সংলাপের ফল শূন্য বলা যাবে না: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সংলাপের ফল শূন্য, এটি বলা যাবে না। তারা যে তালিকা দিয়েছেন, তা নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে।

শুক্রবার সকালে দলের মনোনয়ন ফরম বিক্রির পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী মনোনয় সংগ্রহের মধ্য দিয়ে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু হয়েছে। প্রথমে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে দুটি ফরম সংগ্রহ করা হয়েছে। তারপর জাতীয় সংসদের স্পিকারের জন্য মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন হুইপ আ স ম ফিরোজ।

‘মনোনয়ন ফরম বিক্রির মধ্য দিয়ে নির্বাচনের যাত্রা শুরু হয়েছে। সারা দেশে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছে।’ তিনি বলেন, মনোনয়নপ্রত্যাশীদের ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ের আটটি বুথ থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করতে হবে। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কেনার আগ্রহ প্রচণ্ড।

‘আগামী ১১ নভেম্বর বিকাল সাড়ে ৩টায় মনোনয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে পার্লামেন্টের বোর্ডসভা হবে। সেখানে পার্লামেন্টের বোর্ডের মনোনয়ন বিক্রির শেষ তারিখ ঠিক করা হবে,’ বলেন ওবায়দুল কাদের।

ছবি: যুগান্তর

ছবি: যুগান্তর

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নির্বাচনের আইন মেনেই তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এর পর আমরা একটি নিয়মের মধ্যে চলে গেছি। সংলাপের ফল শূন্য, এটি বলা যাবে না। তারা যে লিস্ট দিয়েছে তা নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে।

‘তফসিল ঘোষণার পর তারা আন্দোলনের কর্মসূচি দেবে এটি গণতন্ত্রের পরিপন্থী। তাদের আন্দোলনে জনগণে সায় দেবে না।’

এ সময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর করির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আহমদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, এনামুল হক শামীম, মহিবুল হাছান নওফেল, দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ প্রমুখ।