সহকর্মীকে বিয়ে করায় চাকরি থেকে বরখাস্ত নব-দম্পতি!

ভারতের পুলওয়ামা জেলার ত্রালের ঘটনা এটি। তারিক ভাট ও সুমায়া বশির নামের এই দুইজন পাম্পোর মুসলিম এডুকেশনাল ইনস্টিটিউটে ছেলে ও মেয়ে বিভাগের শিক্ষক। পরিবারের পক্ষ থেকেই দু’জনের বিয়ের ব্যবস্থা করা হয়। সেই উপলক্ষ্যে তারা স্কুলের সহকর্মীদের নিয়ে ছোট অনুষ্ঠানও করেন। কিন্তু ঠিক বিয়ের দিন তাদের স্কুল থেকে বহিস্কার করা হল! কারণ? যে কারণ জানানো হয়েছে তাদের তা রীতিমতো অদ্ভুত। তাদের বলা হয়েছে, বিয়ের পর তারা স্কুলে পড়ালে তাদের ‘রোমান্স’-এর জন্য পড়ুয়াদের ক্ষতি হবে।

এদিকে, বিনা নোটিশে হঠাৎ এভাবে স্কুল থেকে বিতাড়িত হয়ে রীতিমতো সমস্যায় পড়েছেন তারা। তাদের অভিযোগ, যে কারণ তাদের দেখানো হয়েছে, তা একেবারেই যুক্তিহীন। এ ব্যাপারে স্কুলের প্রধানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও কোন জবাব মেলেনি।

তবে জবাব এসেছে স্কুলের চেয়ারম্যানের কাছ থেকে। তার বক্তব্য তারিক-সুমায়ার সম্পর্ক স্কুলের ছেলেমেয়েদের ওপর প্রভাব ফেলবে।
কারণ বিয়ের আগে থেকেই তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

তবেএই দাবি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন সদ্য বিবাহিত দম্পতি। স্কুলের এই পদক্ষেপে খুবই হতাশ তারা। বিয়ের জন্য এক মাসের ছুটি মঞ্জুর করার পরেও স্কুল এই ধরণের তুঘলকি সিদ্ধান্ত কি করে নেয়, তা জানতে চেয়ে পরবর্তীতে আইনী পদক্ষেপ নেবেন বলে জানিয়েছেন ওই শিক্ষক দম্পতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares