সোনালী ট্রফির জন্য অনুশীলন শুরু আর্জেন্টিনার

ঘড়ির কাঁটা ঘুরে দ্রুতই কাছে চলে আসছে। এরপরই পর্দা উঠতে যাচ্ছে ‘গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ খ্যাত বিশ্বকাপ ফুটবলের। বিশ্বসেরা হওয়ার এ আসরে তুমুল যুদ্ধে অবতীর্ণ হবে ৩২ দেশ। টানা এক মাস চলবে এ যুদ্ধ। এ যুদ্ধে অবতীর্ণ হওয়ার পূর্ব প্রস্তুতি হিসেবে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে আর্জেন্টিনা ফুটবল দল।

কোচ জর্জ সাম্পাওলির অধীনে দেশের রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্স থেকে ৩২ কিলোমিটার দূরে ‘এজেইজা’তে বুধবার শুরু হয়েছে এই অনুশীলন।

সর্বশেষ বিশ্বকাপ জয়ের পর কেটে গেছে ৩২টি বছর। এরপর থেকে আর কোনো বড় শিরোপা ছুঁয়ে দেখা হয়নি আলবেসিলেস্তেদের। ব্রাজিলে গত বিশ্বকাপে (২০১৪) তো শিরোপা জয়ের খুব কাছেই চলে গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত ফাইনালে মারিও গোটশের গোলে জার্মানির কাছে হেরে স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে।

এবার রাশিয়া বিশ্বকাপে সেই আক্ষেপটা ঘুচাতে চায় দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা। বিশেষ করে লিওনেল মেসির মতো বিশ্বসেরা একজন ফুটবলার বিশ্বকাপ শিরোপা জিতবেন না, সেটা মানতে কষ্ট হয় খোদ সমালোচকদেরও।

মেসি তো মনে করছেন, ঈশ্বরের কাছে একটি বিশ্বকাপ পাওনা হয়ে গেছে তার। আর্জেন্টাইন অধিনায়কের ভাষায়, আমি জানি ঈশ্বর চাইছে আমাকে একটি বিশ্বকাপ দিতে; কিন্তু গতবার খুব কাছে গিয়েও সেটি আমাকে দেননি। আমি আশা করবো, ঈশ্বর এবার অন্তত আমাকে বিশ্বকাপটা দেবেন, যাতে করে কাঁটাটা সরিয়ে ফেলতে পারি।

এবার সেই না পাওয়ার বেদনা ঘুচাতে সর্বস্ব দিয়ে লড়বেন মেসি। দলের সেরা তারকার আক্ষেপ দূর করতে নিশ্চয়ই এগিয়ে আসবেন সতীর্থরাও। সেই লক্ষ্যেই নিজেদের প্রস্তুত করার কাজ শুরু হয়ে গেছে। ‘এজেইজা’তে দিনভর ঘাম ঝরানো অনুশীলন করতেই দেখা গেছে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ স্বপ্ন কাঁধে নিয়ে বেড়ানো ফুটবলারদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *