স্কুলছাত্র হত্যায় জড়িত সন্দেহভাজন যুবক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

যশোরের মণিরামপুরে স্কুলছাত্র তারিফ অপহরণ ও হত্যায় জড়িত সন্দেহভাজন বিল্লাল হোসেন নামে এক যুবক পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। নিহত বিল্লাল মণিরামপুর উপজেলার খেদায়পুর গ্রামে মোস্তফার ছেলে।

বুধবার ভোরে মণিরামপুরের নেহালপুর সড়কের কামালপুর জোড়া ব্রিজের কাছে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ জানিয়েছে। পরে অপহৃত স্কুলছাত্র তারিফের লাশও উদ্ধার করে পুলিশ।

যশোরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আনসার উদ্দিন জানান, নিহত বিল্লাল গত ৬ জানুয়ারি রবিবার মণিরামপুরের গোপালপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র তারিফ হোসেনকে অপহরণ করে। এরপর সে তার পরিবারের কাছে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তারিফের পরিবার এক লাখ টাকা জোগাড় করে বিল্লালের দেওয়া একটি বিকাশ নম্বরে পাঠায়। বিল্লাল কেশবপুরের এক বিকাশ এজেন্টের কাছে ওই টাকা আনতে গেলে সেখান থেকে পুলিশ তাকে আটক করে। এরপর বিল্লালের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী রাতে  মণিরামপুরের নেহালপুর সড়কের কামালপুর জোড়া ব্রিজের কাছে তারিফের লাশ উদ্ধার করতে যায় পুলিশ।

এসময় বিল্লালের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। পুলিশও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে।

এসময় গোলাগুলির মধ্যে পড়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে বিল্লাল নিহত হয়। পরে ওই ব্রিজের নিচ থেকে তারিফের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত তারিফ ও বিল্লালের লাশ যশোর জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।