স্কুলের অনুষ্ঠানে ছাত্রীদের নগ্ন নাচ!

দক্ষিণ আফ্রিকায় স্কুলের অনুষ্ঠানে সংগীতের তালে নগ্ন হয়ে ছাত্রীদের নাচ পরিবেশনা নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনার তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির শিক্ষামন্ত্রী। বিবিসির সংবাদ।

শিক্ষামন্ত্রী অ্যাঙ্গি মোৎসেকগা বলেন, জোসা মেয়েদের এভাবে নগ্ন হয়ে অনুষ্ঠান পরিবেশনে চরমভাবে মনঃক্ষুণ্ন হয়েছি আমি।

উল্লেখ্য, জোসা হচ্ছে জুলু’র পর দক্ষিণ আফ্রিকার সবচেয়ে বড় আদিবাসী জনগোষ্ঠী। শরীরে সামান্য কাপড়ের টুকরা রেখে ‘ইঙ্কিও’ নামের সঙ্গীত পরিবেশনা করে থাকে আদিবাসীর লোকেরা।

তবে অ্যাঙ্গি বলেন, স্কুলে এ ধরণের কর্মকাণ্ড দেশের সাংস্কৃতিক মূল্যবোধের প্রতি অসম্মান। তবে অনুষ্ঠানের সঙ্গীত পরিচালক বলেন, তিনি এ পরিবেশনা নিয়ে সন্তুষ্ট ও গর্বিত।

দেশটির সংবাদমাধ্যম ডেইলি ডিসপ্যাচের ওয়েবসাইটে স্কুলের এ শিক্ষক বলেন, আমরা আমাদের জোসা ঐতিহ্য নিয়ে গর্বিত। আমরা ‘ইঙ্কিও’ গান-নাচ নিয়ে গর্বিত।

ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে এ সপ্তাহের শুরুতে দেশটির ইস্টার্ন ক্যাপের এমথাথা এলাকায় এক প্রতিযোগীতায় সঙ্গীত ও নাচ পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Reply