২০০ টন স্বর্ণসহ নিখোঁজ রুশ জাহাজের সন্ধান

১৯০৫ সালে জাপানের সঙ্গে যুদ্ধের সময় ২০০ টন স্বর্ণের বার নিয়ে নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল দিমিত্রি দানস্কোই নামে রুশ নৌবাহিনীর একটি জাহাজ। অবশেষে ১১৩ বছর পর সেই যুদ্ধজাহাজের খোঁজ মিলেছে দক্ষিণ কোরিয়ার উপকূলে।

সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ার সাগরে ক্ষতিগ্রস্ত বা অক্ষম জাহাজ উদ্ধারকারী টিম স্বর্ণবোঝাই ওই জাহাটির সন্ধান পায়। উলেউঙ্গদো দ্বীপের কাছে সমুদ্রের প্রায় ১৪শ’ ফুট নিচে জাহাজটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে বলে রুশ সংবাদমাধ্যম থেকে জানা গেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার উদ্ধারকারী কোম্পানি শিনিল গ্রুপ বলছে, মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) থেকে জাহাটির উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। আগামী অক্টোবর থেকে নভেম্বরের মধ্যে জাহাজ উদ্ধার কাজ শেষ করা যাবে বলে ধারণা করছে কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে উদ্ধার কাজে যুক্ত হয়েছে ব্রিটেন এবং কানাডার উদ্ধারকারী দলের কয়েকটি ডুবোজাহাজ।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, জাহাজটিতে যে পরিমাণ স্বর্ণ ছিল তার পুরোটাই পাওয়া গেছে। যার বর্তমান বাজার মূল্য প্রায় ১১৩ বিলিয়ন (এক হাজার ১১৩ কোটি) ডলার।

জানা গেছে, ১৮৮৩ সালে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গ থেকে জাহাজটি পাড়ি জমিয়েছিল। এরপর বিভিন্ন সময়ে এতে হামলা করে কিছু করতে না পারলেও ১৯০৫ সালে জাপানি যুদ্ধজাহাজের সঙ্গে মোকাবেলা করতে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতি হয় দিমিত্রি দানস্কোই’র।

সে সময়ের রুশ-জাপান সুশিমার যুদ্ধে জাপানি পাঁচটি নৌবহর ওই জাহাজটির মূল স্ট্রাকচার ভেঙে দেয়। এরপর বারবার হামলা হয় জাহাজটিতে। ওই সময়ে জাহাজের মধ্যে থাকা ৫৯১ আরোহীর মধ্যে ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছিল এবং আহত হয়ে পড়েছিলেন প্রায় শতাধিক লোক। পরে ক্যাপ্টেন লেবেদেভ কোনো রকমে জাহাজটিকে উলেউঙ্গদো দ্বীপে নিতে পারেন। আর ওই সময়ে মারা যান ক্যাপ্টেনও।

শিনিল গ্রুপ জানায়, ওই জাহাজের বিপুল পরিমাণ সম্পদের অর্ধেক পাবে রাশিয়া। পরে বাকিটুকুর ১০ শতাংশ উলেউঙ্গদো দ্বীপের পর্যটন এলাকা সাজাতে ব্যয় হবে। এছাড়া ঐতিহাসিক ওই জাহাজটিকে স্মরণ করে রাখেত বাকি টাকা দিয়ে একটি জাদুঘর করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *