৪৫ মিনিটের ঝড় আমাদের ছিটকে দিয়েছে: কোহলি

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৮ রানে হেরে বিশ্বকাপের স্বপ্ন ভেঙে গেছে ভারতের। গত বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে তাদের স্বপ্ন কেড়ে নিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। এবার বিরাট কোহলিদের হৃদয় চুরমার হলো কিউইদের হাতে। এই নিয়ে বিশ্বকাপ ইতিহাসে ৪ বার শেষ চার থেকে বিদায়ের ইতিহাস লিখলো ভারত।

রাউন্ড রবিনে দুর্দান্ত ব্যাটিং করলেও ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে নিউজিল্যান্ড বোলারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি কোহলি-রোহিত শর্মারা। দলীয় তিন অঙ্কের ঘর পেরোনোর আগেই টপ-অর্ডারের ছয় ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে ফেলে তারা। বিশ্বের সেরা ব্যাটিং লাইন-আপের এমন তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ার পেছনে কোহলি নিজেদের ব্যাটিং ব্যর্থতা ও ভাগ্যকে দায়ী করেছেন।

ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘সারা টুর্নামেন্টে ভাল খেলেও ৪৫ মিনিটের খারাপ ক্রিকেট আমাদের টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে দিয়েছে। নিউজিল্যান্ডের এই জয় প্রাপ্য। তারা আমাদেরকে খুব চাপে রেখেছিল। এই সময়, আমাদের শট সিলেকশন আরও ভাল হতে পারতো।’ তবে হারলেও নিজের দল নিয়ে গর্বিত কোহলি, ‘পুরো টুর্নামেন্টে আমরা ভাল ক্রিকেট খেলেছি। যেভাবে আমরা টুর্নামেন্ট শেষ করেছি তার জন্য আমি গর্বিত।’

বৃষ্টির কারণে বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালটি গড়ালো দু’দিনে। প্রথম দিন মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) ভারতীয় বোলারদের সামনে খাবি খেতে হয়েছে কিউই ব্যাটসম্যানদের। কিন্তু প্রথম দিনের ফর্মটা রিজার্ভ ডে-তে টেনে আনতে পারেনি ভারত। কোহলিও জানালেন সেই কথা, ‘প্রথমার্ধে আমরা ম্যাচে ছিলাম। ফিল্ডিংয়ে যা দরকার ছিল তা আমরা দিয়েছি। আমরা জানতাম গতকাল আমাদের ভাল দিন গেছে।’

কিন্তু দ্বিতীয় দিনে সেই আত্মবিশ্বাস টিকিয়ে রাখতে পারেনি টিম ইন্ডিয়া। নিউজিল্যান্ড পেসাররা পিচের সুবিধা পেয়েছে বলে মনে করেন কোহলি, ‘নিউজিল্যান্ড বোলারদের প্রশংসা দিতে হবে। তারা এমন পিচের সাহায্য নিয়ে বল সুইং করেছে।’

এক সময় নড়বড়ে ভারতকে জয়ের স্বপ্ন দেখাতে শুরু করেন মহেন্দ্র সিং ধোনি ও রবীন্দ্র জাদেজা। ম্যাচটাও প্রায় হাতের মুঠোই নিয়ে এসেছিল দু’জনে। কিন্তু শেষ হাসিটা হাসতে পারেননি। অবশ্য খাদ থেকে যেভাবে তারা ম্যাচ বের করার দিকে এগোচ্ছিল তার জন্য ধোনি-জাদেজাকে প্রশংসায় ভাসিছেন কোহলি, ‘জাদ্দু (জাদেজা) অসাধারণ খেলেছে। ধোনিকে নিয়ে সে দারুণ জুটি গড়েছে। কিন্তু ধোনির রান আউট আমাদের ম্যাচ থেকে ছিটকে দেয়।’