নাগরিকদের ফেরাতে চীনে সামরিক বিমান পাঠালো রাশিয়া

Advertisements

করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে আটকে পড়া নিজ দেশের নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে আনতে সামরিক বিমান পাঠিয়েছে রাশিয়া। ১৩০ জনেরও বেশি রুশ নাগরিককে আজ মঙ্গলবারের মধ্যেই দেশে ফিরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে দেশটি। রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাতে এমন খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

চীনে অবস্থিত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আন্দ্রে দেনিসভ বলেছেন, ‘এসব বিমান পাঠানোর জন্য মঙ্গলবার চীন কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লিখিত অনুমতি পেয়েছে রাশিয়া।’ রাশিয়ার সেসব সামরিক বিমান ইতোমধ্যে চীনের উহানে অবতরণ করেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

করোনাভাইরাসের বিস্তার ও সংক্রমণ ঠেকাতে ইতোমধ্যে চীনের সঙ্গে আকাশ ও রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে রাশিয়া। এছাড়া দেশটির উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত অঞ্চলগুলোর সঙ্গে চীন লাগোয়া সীমান্তগুলো বন্ধ করা হয়েছে। এছাড়া চীনা কর্মীদের জন্য ভিসা প্রদানের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে রুশ কর্তৃপক্ষ।

ইন্টারফ্যাক্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী রাশিয়ার সহকারী প্রধানমন্ত্রী তাতিয়ানা গোলিকোভা মঙ্গলবার বলেছেন, ‘করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল থেকে রুশ নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে আনার পর সাইবেরিয়ার তিউমেন তৈরি একটি ‘কোয়ারেন্টাইন’ এলাকায় রাখা হবে। ১৪ দিন তাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হলেও আশা করছি তারা সুস্থ আছেন।’

চীনেও হুবেই প্রদেশের রাজধানী শহর উহান থেকে করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, উহানের একটি বন্যপ্রাণীর বাজার থেকে এর উৎপত্তি। গোটা চীনে ২০ হাজারের বেশি মানুষ এখন নভেল করোনাভাইরাস নামের নতুন এই ভাইরাসে আক্রান্ত। এতে আক্রান্ত হয়ে ৪২৫ জন মারা গেছেন।

এদিকে বিশ্বের ২৬টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাসের বিস্তার ও সংক্রমণ ঠেকাতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) বৈশ্বিক জরুরি স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করেছে।

আজ মঙ্গলবার তাইওয়ান সরকার চীনা পর্যটকদের দেশে প্রবেশে ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে এবং বেশিরভাগ বিমান সংস্থা চীনের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়েছে। এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আজ হংকংয়ে ৩৯ বয়সী একজন মারা গেছেন। এ নিয়ে চীনের মূল ভূখণ্ডের বাইরে দুজন মারা গেল।