ক্ষেতে নেমে ধান রোপণ করছেন সালমান খান

Advertisements

একদমই তাই। পুরোদস্তুর কৃষকই বনে গেছেন তিনি। বেশ কয়েকদিন ধরেই বিশেষ বান্ধবী ইউলিয়া ভান্তুরের সঙ্গে সালমান খানের ক্ষেত-খামারি করার ছবি আর ভিডিও সোশাল দুনিয়ায় ভাইরাল। এর জন্য নেটদুনিয়ায় সমালোচনার শিকারও হয়েছেন সল্লু মিয়া। কিন্তু নিন্দুকদের পরোয়া করেন না তিনি। কোনোদিনই অবশ্য করেন না। নিজের কাজ আপন মনে করে যেতে পছন্দ করেন।

তেমনি করে সমালোচকদের বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এখনো তিনি ক্ষেত-কাঁদামাটি নিয়েই পড়ে আছেন কৃষকদের মতো। এবার তাকে ধানের চারা রোপণ করতে দেখা গেল একটি ভিডিওতে। ভক্তরা বলছেন, ‘এটাই হল ভাইজানের আসল রূপ। কোনোরকম সমালোচনায় কান না দিয়ে স্বমহিমায় নিজেকে ব্যস্ত রেখেছেন নিজের কাজে।’

কখনো তিনি ট্রাক্টর চালাচ্ছেন, কখনো বা গোড়ালি জলে নেমে কাঁদায় ধানের চারা রোপণ করছেন। সম্প্রতি বলিউড ভাইজানের শেয়ার করা এক ভিডিওতে বিশেষ বান্ধবী ইউলিয়া ভান্তুরের সঙ্গে ক্ষেতে নেমে কাজ করতে দেখা গেল তাকে। ধূসর রঙের টি-শার্ট, মাথায় টুপি, প্যান্ট গুটিয়ে একমনে ধানের চারা লাগাচ্ছেন। শুধু তাই নয়, ধানের চারা রোপণ করে, ক্ষেতের জলে হাত ধুয়ে সেখানেই বিশ্রাম করতেও দেখা যায় বলিউড অভিনেতাকে।

ভিডিওর আবহ সংগীতে, ‘সারে জাহা সে আচ্ছা’র সেই ধুন। কৃষিপ্রধান দেশে কৃষকরাই যে সম্বল, তাদের রোজকার কাজটা যে কতখানি কষ্টের তা ব্যক্তিগতভাবে অনুভব করে তাদের সম্মান জানাতেই কৃষিকাজে মেতেছেন সালমান।

বিজ্ঞাপন

কৃষক সালমান চাষ করছেন, মাঠের ধার দিয়ে বয়ে চলা ছোট্ট জলাশয়ে কর্দমাক্ত হাত-পা, মুখ ধুচ্ছেন। এত সাদামাটা, সহজ সরলভাবে বোধহয় সালমানকে এর আগে কখনো দেখেননি ভক্তরা। তাই স্বাভাবিকবশতই সেই ভিডিও প্রকাশ্যে আসতেই তা দাবানলের গতিতে ভাইরাল হয়ে গেছে নেটদুনিয়ায়।

প্রসঙ্গত, করোনার কারণে ভারতে লকডাউন শুরু হতেই মুম্বাইয়ের বাড়ি ছেড়ে পানভেলের বাগান বাড়িতে চলে যান সালমান খান। পরিবারের বেশ কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে সেখানে তার সঙ্গী হন ইউলিয়া ভান্তুর, জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজরা। তবে প্রথম পর্বের লকডাউন শেষ হতেই পানভেলের বাগান বাড়ি ছেড়ে মুম্বাইতে চলে যান জ্যাকলিন।