জাতীয়

ঢাবিতে ডেঙ্গু পরীক্ষায় প্লাটিলেট গণনা, প্রথম দিনেই যন্ত্র ‘হ্যাং’

Advertisements

রাজধানীতে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) চিকিৎসাকেন্দ্রে রক্তের প্লাটিলেট গণনার যন্ত্র আনা হয়েছে। কিন্তু আজ রোববার প্রথম দিনেই শিক্ষার্থীদের চাপের কারণে যন্ত্রটি হ্যাং করেছে। ফলে প্লাটিলেট গণনার কাজ থেমে থেমে চলছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চিকিৎসাকেন্দ্রের প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. সারওয়ার জাহান বলেন, ‘সকাল সাড়ে ৮টা থেকে প্লাটিলেট গণনা কার্যক্রম শুরু হয়। সারা দিনে অন্তত ২০০ শিক্ষার্থী এই সেবা নিয়েছেন। আক্রান্ত নন, এমন অনেক শিক্ষার্থীও রক্ত পরীক্ষা করাতে এসেছেন। সেবাপ্রত্যাশী শিক্ষার্থীদের চাপে বিকেল ৫টার দিকে প্লাটিলেট গণনার যন্ত্রটি হ্যাং হয়ে যায়। টেকনিশিয়ানরা যন্ত্রটি ঠিক করার চেষ্টা করছেন। রাত ৯টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা এই সেবা নিতে পারবেন।’

ডা. সারওয়ার জাহান জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট কতজন শিক্ষার্থী ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন, সেই তথ্য তাদের কাছে নেই। গত শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে ডেঙ্গু আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের ভর্তির হার কমে এসেছে। এর আগের কয়েক দিনে প্রতিদিন গড়ে ২০ থেকে ২৫ জন শিক্ষার্থী ভর্তি হয়েছিলেন।

প্লাটিলেট গণনার যে যন্ত্রটি বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে স্থাপন করা হয়েছে, তার মাধ্যমে ডেঙ্গু শনাক্ত করা সম্ভব নয় বলেও জানিয়েছেন ডা. সারওয়ার জাহান। তিনি বলেন, ‘এই যন্ত্রের মাধ্যমে শুধু রক্তের প্লাটিলেট সেল (অণুচক্রিকা) গণনা করা সম্ভব। এর মাধ্যমে রোগীর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণে রাখা যেতে পারে।’

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হলে খোঁজ নিয়ে অন্তত ১০০ জন শিক্ষার্থী ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে।