খেলার খবর

নিষিদ্ধ ওষুধ সেবন করায় ভারতীয় খেলোয়াড় ৮ মাসের জন্য নিষিদ্ধ

Advertisements

ডোপ টেস্টে ব্যর্থ হওয়ায় ৮ মাসের জন্য সাসপেন্ড হলেন প্রতিশ্রুতিমান ক্রিকেটার পৃথ্বী সাউ। ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থা (বিসিসিআই) জানিয়েছে, নিষিদ্ধ ওষুধ সেবন করায় সাসপেন্ড করা হয়েছে মুম্বই ক্রিকেট সংস্থার নথিভূক্ত ক্রিকেটার পৃথ্বীকে। ওই ওষুধ সাধারণত কাশির সিরাপে মেলে।

ভারতীয় ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, চলতি বছরের ২২ ফেব্রুয়ারি ইন্দোরে সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফির ম্যাচে তার মূত্র পরীক্ষার করা হয়। তাতে মিলেছে নিষিদ্ধ ওষুধ টার্বুটালিন। ওয়াডার নিষিদ্ধ ওষুধের তালিকায় রয়েছে সেটি।

বিসিসিআই জানিয়েছে, চলতি বছরের ১৬ জুলাই ডোপ পরীক্ষায় ফেল করেন পৃথ্বী সাউ। বিসিসিআইয়ের ডোপ বিরোধী আইনের ২.১ অনুচ্ছেদে তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। নিজের অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছেন সাউ।

তিনি যুক্তি দিয়েছেন, অনিচ্ছাকৃতভাবে ওই ওষুধ সেবন করেছিলেন। সর্দি-কাশি দূর করতে খেয়েছিলেন সিরাপ। তার ব্যাখ্যায় অসঙ্গতি খুঁজে পায়নি বিসিসিআই।

তারা মনে করে, অনিচ্ছাকৃতভাবে নিষিদ্ধ ঔষধ সেবন করেছিলেন পৃথ্বী সাউ। সবরকম প্রমাণ ও বিশেষজ্ঞের মতামত খতিয়ে দেখার পর ৮ মাসের জন্য পৃথ্বী সাউকে সাসপেন্ডের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিসিআই। জিনিউজ।