Advertisements

দিয়া মির্জা লম্বা রেসের ঘোড়া হতে পারেননি। বলিউডে ২০০১ সালে ‘রেহেনা হে তেরে দিলমে’ ছবির মাধ্যমে সাড়া ফেলেছিলেন। প্রথম ছবিতে দিয়াকে ভালোভাবেই গ্রহণ করেছিলেন দর্শক। পরবর্তীতে আরও বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেন। কিন্তু সফলতা পাননি দিয়া।

বিরতি ভেঙে ‘লাভ ব্রেক আপ জিন্দেগি’র মাধ্যমে বড় পর্দায় ফেরেন। কিন্তু বরাবরের মতো এই ছবিটিও দর্শকপ্রিয়তা পায়নি। তবে এই ছবির মাধ্যমেই মনের মানুষ খুঁজে পেয়েছিলেন দিয়া। এরপরই ছবির পরিচালক  এবং ব্যবসায়ী সাহিল সাঙ্গাকে বিয়ে করেন দিয়া।

এদিকে বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) দিয়া এক যৌথ বিবৃতিতে তাদের বিচ্ছেদের কথা জানান। সোশ্যাল মিডিয়াতে দিয়া লেখেন, এগারো বছর একসঙ্গে বসবাসের পর আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি আলাদা হবার। সিদ্ধান্তটি আমরা দুজনে মিলেই নিয়েছি। বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক এবং পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধা থাকবে সর্বদা। আমরা পরিবার ও বন্ধুদের কাছে কৃতজ্ঞ পাশে থাকার জন্য। আর মিডিয়া কর্মীদের উদ্দেশে অনুরোধ এর চেয়ে বেশি কিছু আপাতত জানতে চাইবেন না। কারণ আমাদের নিজের মতো থাকা দরকার।     সাহিল এবং দিয়া ১৮ অক্টোবর ২০১৪ সালে বিয়ে করেন।

By Abraham

Translate »